দখলদার ঠেকাবে পর্যটন! ব্যতিক্রমী উদ্যোগ হালুয়াঘাটে

|

পাহাড়, টিলা, বনভূমি, নদী, খালবিলসহ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্যে ভরা ময়মনসিংহ জেলায় পর্যটন শিল্প বিকাশ লাভ করেনি প্রত্যাশিত মাত্রায়। সীমান্ত এলাকায় পাহাড়-টিলা অবৈধ দখলদারদের হাতে চলে যাওয়া থেকে রক্ষা করতে ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়েছে জেলা প্রশাসন।

এরই অংশ হিসেবে গারো পাহাড়ের কোলঘেঁষা হালুয়াঘাট উপজেলার প্রত্যন্ত অবহেলিত ও পাহাড়বেষ্টিত গাবরাখালি গ্রামে ১৪টি পাহাড় টিলার সমন্বয়ে ১২৫ একর জমিতে প্রশাসন ও স্থানীয় জনগণের অংশগ্রহণে একটি পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তোলা হয়েছে।

পাহাড় ও সমতলের মিলনস্থল এই জায়গাটি ইতোমধ্যে সাড়া ফেলেছে ভ্রমনপিপাসুদের মধ্যে। সরকারের স্থানীয় বিনিয়োগ মডেল অনুসরণ করে তৈরি করা হয়েছে এই পর্যটন কেন্দ্র। এতে রয়েছে ৩ টি বিশ্রামাগার, একটি রেস্ট হাউজ।

এছাড়াও বিভিন্ন টিলায় ওঠার জন্য সিঁড়ি ও কানেক্টিং ব্রিজ আছে। তৈরি করা হচ্ছে ন্যাচারাল পার্ক ও স্থানীয় ক্ষুদ্র নৃতাত্ত্বিক জনগোষ্ঠীর জীবনভিত্তিক জাদুঘর।

সেইসঙ্গে স্থানীয় ব্যবসায়ীদের নিজস্ব বিনিয়োগে গড়ে উঠছে ফুড পার্ক ও শপিং জোন। প্রায় ৩০লক্ষ টাকা স্থানীয় বিনিয়োগের মাধ্যমে গড়ে উঠছে শিশু পার্ক।

এদিকে হালুয়াঘাটের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল করিম বলছেন, খুব শীঘ্রই শুরু হবে ওয়াচ টাওয়ার এবং গ্রুপভিত্তিক সমবায় সমিতির মাধ্যমে ক্যাবল কার ও সুইমিং পুল নির্মাণের কাজ।

কেন্দ্রটিকে সেবাবান্ধব হিসেবে গড়ে তুলতে গঠন করা হয়েছে ক্ষুদ্র নৃ-তাত্ত্বিক জনগোষ্ঠী ও স্থানীয় শিল্পীদের সমন্বয়ে কালচারাল টিম, ডেকোরেশন টিম ও ট্যুরিস্ট গাইড টিম।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply