জমে উঠেছে পাকিস্তান-আফগানিস্তান দ্বৈরথ

|

ফখর জামানের উইকেট নেয়ার পথে নবীর সফল আবেদন। ছবি: সংগৃহীত

আফগানিস্তানের দেয়া ১৪৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে ভালই জবাব দিচ্ছে পাকিস্তান। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত পাকিস্তানের সংগ্রহ ১৪ ওভার শেষে ২ উইকেটে ৯৭ রান। জয়ের জন্য তাদের দরকার ৩৬ বলে ৫১ রান।

পাকিস্তান ব্যাটিংয়ের মূল শক্তি বাবর আজম ও মোহাম্মদ রিজওয়ানের উদ্বোধনী জুটি। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচেই দেখা গেছে, ক্রিকেটীয় সব শট খেলেই দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দেয়ার কাজটা তারা খুবই ভালো পারেন। তবে আফগানিস্তানের সাথে দীর্ঘায়িত হয়নি এই উদ্বোধনী জুটি। দলীয় ১২ রানের মাথায়ই ফিরে যান ইনফর্ম রিজওয়ান। তারপর মারমুখী ফখর জামানকে নিয়ে ধীরে সুস্থে লক্ষ্যের দিকে এগোতে থাকেন বাবর। কিন্তু দশম ওভারে প্রথমবারের মতো আক্রমণে এসে বাবরকে কাঁপিয়ে দিয়েছেন রশিদ খান। এই লেগস্পিনারের বলে এলবিডব্লিউ হওয়ার পর রিভিউ নিয়ে অবশ্য জীবন ফিরে পান বাবর। কিন্তু পরের ওভারে আর রেহাই পাননি ফখর জামান। মোহাম্মদ নবীকে সুইপ করতে গিয়ে বলের ফ্লাইট মিস করে এলবিডব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফেরেন এই বাঁহাতি ব্যাটার।

মোহাম্মদ নবী তার দলের বোলিং আক্রমণ সাজান দুই স্পিনার মুজিব উর রাহমান ও রশিদ খানকে কেন্দ্র করে। নতুন বলে পাওয়ার প্লে সামলানোর দায়িত্বটি ভালোভাবেই সেরেছেন মুজিব। ৪ ওভারের টানা স্পেলে মাত্র ১৪ রান খরচায় তিনি তুলে নিয়েছেন রিজওয়ানের উইকেট। আর মোহাম্মদ নবী দশম ওভারে প্রথমবারের মতো আক্রমণে এনেছেন তার দলের মূল বোলার রশিদ খানকে। দেখা যাক, ডেথ ওভারে পাকিস্তানের ব্যাটিং কীভাবে সামলান রশিদ খান। এর উপর যে ম্যাচের ফলাফলও নির্ভর করছে অনেকটাই।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply