লাইভ টকশো থামিয়ে শোয়েব আখতারকে বেরিয়ে যেতে বললেন সঞ্চালক!

|

ছবি: সংগৃহীত

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের শুরুতেই ইতিহাস গড়েছে পাকিস্তান। গত ২৯ বছরের রেকর্ড ভেঙে দিয়ে বিশ্বকাপের মঞ্চে প্রথমবারের মতো টিম ইন্ডিয়াকে হারিয়েছে বাবর আজমরা। ওই ম্যাচের পর থেকেই পাকিস্তানের দুরন্ত পারফরম্যান্স ও কোহলিদের চূড়ান্ত ব্যর্থতা নিয়ে চলছে নানা সমালোচনা। এরই মধ্য অদ্ভুত এক পরিস্থিতির শিকার হলেন পাকিস্তানে সাবেক বোলার শোয়েব আখতার। লাইভ শো থেকে আচমকাই তাকে বেরিয়ে যেতে বললেন সঞ্চালক। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই নিন্দার ঝড় উঠেছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে।

ঘটনাটি ঠিক কী? বিশ্বকাপে কোহলিদের বিরুদ্ধে দুর্দান্ত বোলিং করেছিলেন পাক পেসার শাহিন আফ্রিদি। জাতীয় দলের আরেক বোলার হ্যারিস সোহেলের উত্থানের কথাই তুলে ধরছিলেন রাওয়ালপিণ্ডি এক্সপ্রেস। কিন্তু বক্তব্যের মাঝেই তাকে থামিয়ে দেন সঞ্চালক ডা. নৌমান নিয়াজ। উল্টে বলেন, আপনি একটু কর্কষভাবে কথা বলছেন। যদিও বলতে চাইছি না, তবে নিজেকে অতিরিক্ত স্মার্ট মনে করলে এখান থেকে বেরিয়ে যেতে পারেন। লাইভেই এ কথা আপনাকে বলছি।

স্বাভাবিক ভাবেই সঞ্চালকের এমন মন্তব্যে হতভম্ব হয়ে যান আখতার। সঙ্গে সঙ্গে জিজ্ঞেস করার চেষ্টা করেন, ঠিক কী কারণে তাকে বেরিয়ে যেতে বলা হলো। কিন্তু তার উত্তর না দিয়ে সঞ্চালক বিরতি নেন। গোটা ঘটনায় বেশ অপমানিত বোধ করেন শোয়েব। কারণ সেখানে ভিভ রিচার্ডসসহ ক্রিকেটের অতি পরিচিত ব্যক্তিত্বরাও উপস্থিত ছিলেন।

গোটা বিষয়টি নিয়ে পরে একটি ভিডিও পোস্ট করেন শোয়েব। বলেন, ঘটনার অনেকগুলো ভিডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। তাই জানাতে চাই, ডা. নৌমান যথেষ্ট অভদ্র আচরণ করে আমায় শো থেকে বেরিয়ে যেতে বলেন। যা অত্যন্ত অপমানজনক। বিশেষ করে যেখানে ভিভ রিচার্ডস, ডেভিড গাওয়ারের মতো কিংবদন্তিরা উপস্থিত ছিলেন। লক্ষ লক্ষ মানুষ শো-টা দেখছিলেন। বিষয়টা হালকা করারও চেষ্টা করি। যাতে তিনিও ক্ষমা চেয়ে নিয়ে ফের স্বাভাবিক ছন্দে শো চালিয়ে যান। কিন্তু যা হল, তা দুর্ভাগ্যজনক।

এ বিষয়ে আখতারের পাশে দাঁড়িয়ে ভক্তরা। অনেকেই লিখেছেন, শোয়েব পাকিস্তানের গর্ব। তার অপমান কিছুতেই সহ্য করা হবে না।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply