বাকি সন্তানের খাবার যোগাতে আফগানিস্তানে এক সন্তানকে বিক্রি ৫০০ ডলারে!

|

তালেবান কর্তৃক ক্ষমতা দখলের পর ভালো নেই আফগানিস্তানের অর্থনীতি। বৈদেশিক সাহায্যনির্ভর এই দেশটিকে সাহায্য পাঠানো একে একে বন্ধ করে দিয়েছে পাশ্চাত্য দেশগুলো। ফলে ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয়ের মুখে দেশটি। ইতোমধ্যে দেখা দিয়েছে চরমতম খাদ্য সংকট।

এমনই এক অস্থির পরিস্থিতিতে এক হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটেছে দেশটির হেরাতে। বিবিসির একটি ভিডিও প্রতিবেদনে দেখানো হয়েছে, আর্থিক সংকটে পড়ে একটি পরিবারের বাবা-মা তাদের কন্যাশিশুকে ৫০০ ডলারে বিক্রি করে দিয়েছেন। তবে, নিরাপত্তাজনিত কারণে তাদের নাম-পরিচয় প্রকাশ করা হয়নি।

বিক্রি হওয়া শিশুটির মা বিবিসিকে বলেন, আমার বাকি ছেলে-মেয়েরা না খেতে পেয়ে মারা যাচ্ছে। তাই একজনকে বিক্রি করে দিতে বাধ্য হয়েছি।

অন্যদিকে শিশুটির বাবার ভাষ্য, বাড়িতে কোনো খাবার নেই। খাবার কেনার মতো কোনো অর্থও নেই। আমার মেয়ে জানে না তার ভবিষ্যত কী হবে। জানি না সে এটাকে কীভাবে নেবে। কিন্তু এটা করা ছাড়া আমার উপায় ছিল না।

বিক্রির শর্তে উল্লেখ করা হয়েছে, শিশুটি হাঁটা শিখলে ক্রেতা তাকে নিয়ে যাবেন এবং তার ছেলের সঙ্গে মেয়েটির বিয়ে দেবেন।

ইতোমধ্যে বিক্রির ৫০০ ডলারের অর্ধেক টাকা পেয়েও গেছেন ওই পরিবার। যা দিয়ে কয়েক মাসের খাবার কিনতে পারবেন।

এ ছাড়া সেই প্রতিবেদনে আরও দেখানো হয়, হেরাত অঞ্চলের কোনো হাসপাতালের চিকিৎসক কিংবা নার্স, কেউই ৪ মাস ধরে বেতন পান না। হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসা-সরঞ্জাম কেনার মতো অর্থও নেই। ফলে রোগীরা ঠিকমতো সেবা পাচ্ছেন না।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply