কিউই বধে টানা জয় পাকিস্তানের

|

আসিফ আলির দুই ছক্কায়ই ম্যাচের লাগাম নিজেদের হাতে নেয় পাকিস্তান। ছবি: সংগৃহীত

ভারতের পর নিউজিল্যান্ডকেও হারিয়ে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখলো পাকিস্তান। আগের ম্যাচের মতো একতরফাভাবে না হলেও, লড়াই করেই এবার ৮ বল হাতে রেখে ৫ উইকেটে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে জয় ছিনিয়ে এনেছে বাবর-রিজওয়ানদের পাকিস্তান। এছাড়া সেমিফাইনালের পথেও অনেকটা দূর এগিয়ে গেছে তারা।

ভারতের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের ওপেনিং জুটিই শেষ করে এসেছিল ম্যাচ। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে বাবর ও রিজওয়ানের সতর্ক সূচনায় মনে হচ্ছিল, এই দুই ব্যাটারকে বিচ্ছিন্ন করা নিউজিল্যান্ডের জন্যও কঠিন হবে। তবে সাউদির স্লোয়ারে বিভ্রান্ত হয়ে শেষমেষ অধিনায়কের উইকেট হারায় পাকিস্তান।

বাবর আজমের আউটের পর দেখেশুনেই খেলছিলেন রিজওয়ান খান ও ফাখার জামান। কিন্তু ইশ সোধি বোলিংয়ে এসেই পাল্টে দিলেন দৃশ্যপট। স্ট্যাম্প টু স্ট্যাম্প বোলিংয়ে এলবিডব্লিয়ের ফাঁদে ফেলেন ফাখার জামান এবং পাকিস্তানের অন্যতম সেরা ব্যাটার রিজওয়ান খানকে। তবে চোখে লেগে থাকার মতো আউটটা হয়েছেন ‘দ্য প্রফেসর’ মোহাম্মদ হাফিজ। মিচেল স্যান্টনারের বলে ডান্সিং ডাউন দ্য উইকেটে গিয়ে লং অফ দিয়ে বল সীমানাছাড়া করতে চেয়েছিলেন হাফিজ। কিন্তু জানতেন না, লং অফে ফিল্ডিং করতে থাকা ডেভন কনওয়ের উপর ভর করবেন জন্টি রোডস! কনওয়ে বাম দিকে ঝাপিয়ে পড়ে দৃশ্যত অবিশ্বাস্য এক ক্যাচে ফিরিয়ে দেন হাফিজকে।

এরপর রান তাড়ার দায়িত্ব গিয়ে বর্তায় অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার শোয়েব মালিকের কাঁধে। স্পিনে দারুণ খেলা এই ব্যাটার অবশ্য সে দায়িত্ব পালন করেছেন ভালভাবেই। এর সাথে টিম সাউদিকে টানা দুই ছয়ে রান-বলের সমীকরণ অনেকটাই সহজ করে ফেলেন আসিফ আলী। এই দুই ব্যাটার মিলেই শেষ করে ফেলেন ম্যাচ নিয়ে থাকা সব সংশয়।

এর আগে, হারিস রউফের দুর্দান্ত বোলিংয়ে টস হেরে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রান সংগ্রহ করে নিউজিল্যান্ড। হারিস রউফ ২২ রান খরচায় নেন ৪ উইকেট।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply