৮ উইকেটের অনায়াস জয় দক্ষিণ আফ্রিকার

|

ছবি: সংগৃহীত

র‍্যাসি ভ্যান ডার ডুসেন ও এইডেন মার্করামের ব্যাটে ৮ উইকেটের অনায়াস জয় তুলে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের দেয়া ১৪৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনারের উইকেট হারিয়ে ১০ বল হাতে রেখেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় প্রোটিয়ারা।

১৪৪ রানের মাঝারি টার্গেট তাড়া করতে নেমে প্রথম ওভারেই তাড়াহুড়ো করে রান নিতে গিয়ে আউট হয়েছেন প্রোটিয়া অধিনায়ক টেম্বা বাভুমা। তারপর আরেক ওপেনার রিজা হেনড্রিক্স রান বাড়ানোর কাজ করেছেন। সেই থেকেই স্ট্রাইক রোটেটের দায়িত্ব পালন করে যাওয়া ভ্যান ডার ডুসেন শেষ পর্যন্ত ৪৩ রানে অপরাজিত থেকে দলকে জয় এনে দিয়েই মাঠ ছাড়েন।

হেনড্রিক্স ৩০ বলে ৩৯ রান করে অর্থোডক্স স্পিনার আকিল হোসাইনের বলে আউট হন। তার স্থলে ব্যাট করতে নেমে এইডেন মার্করাম বল-রানের সমীকরণকে অনেকটাই সহজ বানিয়ে ফেলেন। দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ২ চার ও ৪ ছয়ের সাহায্যে মার্করামের ২৬ বলে ৫১ রানের ইনিংসে জয় পেতে কোনো অসুবিধাই হয়নি প্রোটিয়াদের।

কোনোকিছুই ঠিকভাবে হচ্ছে না পোলার্ডের দলের। ছবি: সংগৃহীত

এর আগে, ব্যাটিং অর্ডারে হার্ড হিটারের উপস্থিতির প্রাবল্যে সবচেয়ে ভয়ঙ্কর স্কোয়াড হলেও মাঠের খেলায় তার প্রতিফলন এখনও সেভাবে রাখতে পারছে না ওয়েস্ট ইন্ডিজ। টানা দুই পরাজয়ে সেমিফাইনালের স্বপ্ন অনেকটাই ফিকে হয়ে গেছে ক্যারিবিয়ানদের। গেইল-পোলার্ড-রাসেলদের ব্যাটিং ব্যর্থতায় দক্ষিণ আফ্রিকার সামনে ১৪৪ এর বেশি রান টার্গেট দিতে ব্যর্থ হয়েছে তারা।

অথচ এভিন লুইসের ব্যাটিং নৈপুণ্যে ২২ গজে আধিপত্যের ইঙ্গিতই দিয়েছিল উইন্ডিজ। তবে লেন্ডল সিমন্সের মন্থর ব্যাটিংয়ে এভিন লুইসের মারাকাটারি উইলোবাজির শতভাগ সুবিধা ঘরে তুলতে পারেনি পোলার্ডের দল। লুইসের ৩৫ বলে ৫৬ রানের বিপরীত চিত্র তুলে ধরে সিমন্স আউট হন ৩৫ বলে মাত্র ১৬ রান করে। এরপর গেইল, গেইল, পুরান, রাসেল, হেটমায়াররা পারেননি তাদের হার্ড হিটার পরিচয়কে মাঠে অনূদিত করতে। উল্টো আইনরিখ নকিয়ার ১৪৮ কিলোমিটার/ঘণ্টার গোলার স্ট্যাম্প উড়ে যায় রাসেলের। প্রিটোরিয়াসের স্লোয়ারে বিভ্রান্ত হয়ে ফিরে গেছেন গেইল।

শেষদিকে আসা-যাওয়ার মিছিলের ফাঁকে কাইরন পোলার্ডের ২৬ রান না এলে লড়াইয়েও পুঁজিও হয়তো পেতো না উইন্ডিজ। শেষ পর্যন্ত প্রিটোরিয়াস আর নকিয়ার দক্ষতায় ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান সংগ্রহ করতে সমর্থ হয় ক্যারিবিয়ানরা। তবে এড়াতে পারেনি হার। উল্টো অজিদের বিরুদ্ধে পরাজয় দিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করা দক্ষিণ আফ্রিকা ঠিকই ঘুরে দাঁড়ালো দ্বিতীয় ম্যাচে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply