শামির প্রতি আক্রমণ লজ্জাজনক; পাশে দাঁড়ালেন সাবেক ক্রিকেটাররা

|

ছবি: সংগৃহীত

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের কাছে ১০ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে পরাজয়ের পর থেকেই ভারতের ক্রিকেটারদের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্নভাবে গালি দিচ্ছে ভারতীয় কিছু উগ্রপন্থী সমর্থক। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে শামির অ্যাকাউন্টে গিয়ে তাকে পাকিস্তানের চর বলে গালিও দিয়েছে তারা। তবে এসব আক্রমণকে লজ্জাজনক বলে অভিহিত করে শামির পাশে দাঁড়ালেন ভিভিএস লক্ষ্মণ, গৌতম গম্ভীর, বীরেন্দর সেওয়াগ, ইরফান পাঠানের মতো সাবেক ক্রিকেটাররা।

৩১ বছর বয়সী ভারতীয় পেসার মোহাম্মদ শামির ইনস্টাগ্রামে অসংখ্য মেসেজ এসেছে; যেখানে শামিকে অভিহিত করা হয়েছে ‘বিশ্বাসঘাতক’, ‘পাকিস্তানের চর’। এক ইনস্টাগ্রাম ব্যবহারকারী তাকে বলেছেন ‘পাকিস্তানের দ্বাদশ খেলোয়াড়’। আরেকজন লিখেছেন, ‘বিশ্বাসঘাতক, নিজের ক্ষমতা দেখিয়ে দিলে।’ লেখার অযোগ্য গালাগালি তো চলছিলই। এর মধ্যেই আরেক সমর্থক বলেছেন ‘ভারত দলের পাকিস্তানি।’ একজন সরাসরি লিখেছেন ‘মুসলিম।’ এক সমর্থক জিজ্ঞাসা করেছেন, ‘কোন দলের হয়ে খেলছিলে… (গালি)।’ আরেকজনের পরামর্শ, ‘পাকিস্তানে চলে যাও।’ আরেকজনের পরামর্শ দিয়েছেন, ‘তুমি পাকিস্তানে চলে যাও। তুমি শান্তি পাবে, আমরাও শান্তিতে থাকব।’

তবে দুঃসময়ে মোহাম্মদ শামির পাশে দাঁড়িয়েছে সাবেক ক্রিকেটাররা। ইরফান পাঠান টুইটারে লিখেছেন, ভারত-পাকিস্তানের এমন ম্যাচেও আমি মাঠে ছিলাম যেখানে আমরা হেরেছি। কিন্তু কেউ আমাকে পাকিস্তানে চলে যেতে বলেনি। এসব পাগলামি বন্ধ হওয়া উচিত। শামির পাশে আছি।

মোহাম্মদ শামির পাশে ভিভিএস লক্ষ্মণের মতো দাঁড়িয়েছেন অনেক ক্রিকেটারই। ছবি: সংগৃহীত

ভিভিএস লক্ষ্মণ টুইট করে বলেছেন, গত আট বছর যাবত মোহাম্মদ শামি আমাদের অন্যতম সেরা ক্রিকেটার। বহু গুরুত্বপূর্ণ জয় এসেছে তার দুর্দান্ত পারফরমেন্সে ভর করে। এক ম্যাচের পারফরমেন্স দিয়ে তাকে মূল্যায়ন করা যায় না। আমার শুভ কামনা থাকলো তার জন্য।

বীরেন্দর সেওয়াগ বলেছেন, শামির প্রতি অনলাইন আক্রমণে স্তব্ধ হয়ে গেছি। আমি তার পাশে আছি। সে একজন চ্যাম্পিয়ন ক্রিকেটার। ভারতের জার্সি পরে যারা দেশকে প্রতিনিধিত্ব করে তাদের হৃদয়ে দেশের অবস্থান অবশ্যই অনলাইনে নাশকতাকারীদের চেয়ে ঢের বেশি।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply