ভালো খেললে তালি আর খারাপ হলে গালি: মুশফিক

|

মাঠ এবং মাঠের বাইরে সমালোচনাকারীদের এক হাত নিলেন মুশফিক।

১৬ বছর ধরে খেলার অভিজ্ঞতায় স্বাভাবিকভাবে নিয়েছেন যে, ভালো খেললে মানুষ তালি দেয় আর খারাপ খেললে জোটে গালি, বললেন মুশফিক রহিম। তিনি আরও বলেন, শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ছোটখাটো ভুলের খেসারত দিয়েছে বাংলাদেশ। লিটনের জোড়া ক্যাচ মিসেই ফসকে গেছে জয়। মিস্টার ডিপেন্ডেবল দাবি করেছেন, বোলিংয়ে পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত ঠিক ছিল। তবে পরিকল্পনার সঠিক বাস্তবায়ন হয়নি।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৫ উইকেটের হারে সুপার টুয়েলভ পর্বের শুরু করেছে বাংলাদেশ। ১৭১ রানের পুঁজি নিরাপদ না হলেও লড়াইয়ের জন্য ছিল যথেষ্ট। তবে সাকিব-সাইফের আঘাতের পর ম্যাচে ফেরে বাংলাদেশ। ম্যাচের ১৩ ও ১৪ তম ওভারে আফিফ-রিয়াদের ৩১ রানের সাথে লিটনের আসালাঙ্কার ক্যাচ মিসে মোমেন্টাম হারায় বাংলাদেশ।

রান খরা কাটিয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ৫৭ রানের এই ইনিংসে প্রথম ফিফটির দেখা পান মুশফিকুর রহিম। বাজে সময় কাটানো মুশফিক জবাবটা যেমন ব্যাট হাতে দিয়েছেন তেমনি সংবাদ সম্মেলনে সমালোচকদেরও এক হাত নিলেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল। বলেছেন, আমি তো পোলার্ড বা রাসেলের মতো ক্রিজে গিয়েও চার-ছয় মেরে ফেলা ব্যাটার নই। তবে সমালোচনা শুনে মনে হয়েছে, রান করি না প্রায় ৪-৫ বছর ধরে। তবে এসব সমালোচনাই আমাকে আরও ভালো করার জন্য অনুপ্রাণিত করেছে। দলের জন্য যতো বেশি অবদান রাখা যায়, সে চেষ্টাই থাকবে আমার।

স্কটিশদের কাছে হারে সিনিয়রদের পারফরমেন্স নিয়ে মুখ খোলেন বিসিবি সভাপতি। সুপার টুয়েলভ নিশ্চিতের পর দলকে ছোট করার অভিযোগ করেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের বিরুদ্ধে। মাঠের বাইরে এই সব ঘটনার রেশ রয়ে গেছে। লঙ্কানদের বিপক্ষে হারের পর মুশফিকের কণ্ঠেও ছিল ক্ষোভ। বলেন, ভালো না খেললে সমালোচনা শুনতেই হবে। এটাকে স্বাভাবিকভাবেই গ্রহণ করি আমরা। তবে নিন্দুকদের উচিত আয়নায় নিজের মুখ দেখা। সমালোচনাকারীরা মাঠে খেলেন না, খেলেন ক্রিকেটাররা।

মূল পর্বের দ্বিতীয় ম্যাচে আগামী বুধবার (২৭ অক্টোবর) বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড। সেখানে মাঠের বাইরের ঘটনাকে মাঠের বাইরেই যেন রাখে ক্রিকেটাররা, সেই প্রত্যাশা ভক্তকূলের।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply