টাকা না দেয়ায় ছাত্রলীগ কর্মী দিয়ে পিতাকে কুপিয়ে জখম

|

টাকা দিতে অস্বীকার করায় ছাত্রলীগ কর্মী দিয়ে নিজ পিতাকে কুপিয়ে গুরুত্বর জখমের অভিযোগ উঠেছে পুত্রের বিরুদ্ধে।

মুন্সিগঞ্জ প্রতিনিধি:

মুন্সিগঞ্জে টাকা দিতে অস্বীকার করায় ছাত্রলীগ কর্মী দিয়ে নিজ পিতাকে কুপিয়ে গুরুত্বর জখমের অভিযোগ উঠেছে পুত্রের বিরুদ্ধে।

রোববার সন্ধ্যা ৬টার দিকে মুন্সিগঞ্জ শহরের মানিকপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আহত রফিকুল ইসলামকে (৫৫) মুমূর্ষু অবস্থায় মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকায় রেফার করেছে।

আহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, মানিকপুর এলাকার ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলামকে কিছুদিন ধরে ২ লাখ টাকার জন্য চাপ দিচ্ছিল তার প্রথম স্ত্রীর ঘরের বড় ছেলে ইমন। তবে টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছিল রফিকুল। রোববার সন্ধ্যায় ইমন ভাড়াটে সন্ত্রাসী ও শহর ছাত্রলীগ কর্মী নূর জামান বাধনসহ ১০/১২ জন সন্ত্রাসী ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে রফিকুল ইসলামের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় রফিকুল টাকা দিতে পারবে না বলে জানালে ভাড়াটে সন্ত্রাসী শহর ছাত্রলীগের কর্মী নুর জামান বাধন ধারালো রামদা দিয়ে রফিকুল ইসলামের বাম হাতে কোপ দেয়। এতে বাহু থেকে অনেকটা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় রফিকুলের কবজি। গুরুত্বর আহত অবস্থায় চিৎকার করলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে মুন্সিগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ঢাকায় রেফার করে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

মুন্সিগঞ্জ সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক এন এস আলম প্রধান জানান, আঘাতে মারাত্মক জখম হয়েছে। হাতের বাহু থেকে কবজি অনেকটাই বিচ্ছিন্ন হয়েছে। সামান্য অংশ যুক্ত আছে। অবস্থা বিবেচনায় আহতকে ঢাকায় রেফার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মুন্সিগঞ্জ শহর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন সাগর বলেন, বাধন ছাত্রলীগের পরিচয় ব্যবহার করলেও সে কোনো পদ পদবীতে নেই। সে ছাত্রলীগের নাম ব্যবহার করে বিভিন্ন অপকর্ম করে আসছে। এর দায়ভার শহর ছাত্রলীগ নেবে না। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের ঘটনায় তার আইন অনুযায়ী বিচারের দাবি জানাই।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক জানান, মৌখিক অভিযোগ পেয়ে ঘটনাস্থলে ফোর্স পাঠানো হয়েছে। লিখিত অভিযোগ পেলে তার ভিত্তিতে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ইউএইচ/





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply