মুখোমুখি বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা; এগিয়ে কারা?

|

একটু পরেই মাঠে নামছে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা।

প্রস্তুতি ম্যাচে ১১ দিন আগেই মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা। তখন হয়তো কেউই ভাবেনি এতো কম সময়ের মধ্যেই আবার লড়তে হবে দু’দলকে। কিন্তু স্কটল্যান্ডের সাথে বাংলাদেশের আকস্মিক পরাজয় এবং আইসিসির গ্রুপ সিটিংয়ে পরিবর্তনের কারণে সুপার টুয়েলভে একই গ্রুপে পড়ে গেছে উপমহাদেশের দুই ক্রিকেট শক্তি। এবার পালা প্রথম ম্যাচ জিতে এগিয়ে যাওয়ার। দেখা যাক এবার দল দুটির শক্তির খতিয়ান।

ম্যাচ জয়ী অলরাউন্ডারের উপস্থিতি দুই দলকে এনে দাঁড় করিয়েছে একই বিন্দুতে। সাকিব আল হাসান ও ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা দুই দলের দুই ইম্প্যাক্ট খেলোয়াড়। এর সাথে পেস অ্যাটাকেও মন্দ নয় লঙ্কানরা। দুশ্মন্ত চামিরা ও লাহিরু কুমারা, দুই পেসারই বল করতে পারেন ঘণ্টায় ৯০ মাইল গতিতে। তবে শারজাহর উইকেটে পেস বৈচিত্রে এগিয়ে থাকবে টাইগাররাই। এক্সপ্রেস বোলার হিসেবে আছেন তাসকিন। সাথে কাটারমাস্টার মোস্তাফিজ একাই পারেন যেকোনো ব্যাটিং লাইন আপকে বিপর্যয়ে ফেলতে। ফর্মে আছেন অলরাউন্ডার সাইফুদ্দিন। সাথে মেহেদি হাসানের আন্ডার আর্ম বল তো এবারের কোয়ালিফায়ার রাউন্ডে দারুণ কার্যকর বলেই প্রমাণিত হয়েছে। তবে লঙ্কানরাও হয়তো খুব একটা পিছিয়ে থাকবে না। কোয়ালিফায়ার রাউন্ডের তিন ম্যাচে প্রতিপক্ষকে ৯৬, ১০১ ও ৪৪ রানে অল আউট করেছে শ্রীলঙ্কা।

অভিজ্ঞতায়ও লঙ্কানদের চেয়ে এগিয়ে টাইগার মিডল অর্ডার। সাকিব, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহ প্রত্যেকেই খেলেছেন ৯০টিরও বেশি টি-টোয়েন্টি ইনিংস। আর শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং অর্ডারে সবচেয়ে বেশি টি-টোয়েন্টি ইনিংসে ব্যাট করেছে কুশল পেরেরা, সেটাও মাত্র ৫৫ ইনিংস। তবে টপ অর্ডার ব্যাটিংয়ে দুর্বলতা দু’দলেরই বাস্তবতা। তবে সেই ক্ষতি পুষিয়ে দিতে ভালো ফর্মেই আছেন সাকিব, মাহমুদউল্লাহরা। আর শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মুশফিকের রেকর্ড তো সমীহ জাগানিয়া। লঙ্কানদের সামনে পেলে রান করার সুযোগ হাতছাড়া করতে চাইবেন না মিস্টার ডিপেন্ডেবল; ১৪৮ স্ট্রাইক রেটে ২৩৯ রানই বলে দেয় লঙ্কানরা তার প্রিয় প্রতিপক্ষ। চামিরার শর্ট বল আর হাসারাঙ্গার গুগলিতে উইকেট না হারালে বড় সংগ্রহের আশাই করা উচিত টাইগারদের।

শারজাহর উইকেটে বল নিচু হয়ে ব্যাটে আসবে ধীরে। স্বাভাবিকভাবেই স্পিনাররা সুবিধা পাবেন এখানে। দুপুরে ম্যাচ বলে ডিউ ফ্যাক্টর নিয়েও মাথা ঘামাতে হবে না মাহমুদউল্লাহ বা দাশুন শানাকাকে। র‍্যাঙ্কিংয়ে হয়তো এগিয়ে থেকেই মাঠে নামবে টাইগাররা। তবে মাঠের খেলায় যে পরিসংখ্যান বা র‍্যাঙ্কিং বাড়তি কোনো সুবিধা দেয় না, সেটা বলার অপেক্ষা রাখে না। শক্তিমত্তায় কাছাকাছি দু’দলই চাইবে অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজকে মোকাবিলার আগে থাকুক নামের পাশে অন্তত একটি জয়। দেখা যায়, কারা দখল করে মহামূল্যবান দুই পয়েন্ট।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply