কুমিল্লার আঁচ ছড়ালো ত্রিপুরাতেও! মসজিদে হামলার অভিযোগ

|

কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে হামলার সূত্র ধরে সারাদেশে ছড়ানো সাম্প্রদায়িক সহিংসতার যেন সংক্রমিত হলো কুমিল্লার পার্শ্ববর্তী ভারতীয় রাজ্য ত্রিপুরাতেও। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

শুক্রবার ২২ অক্টোবর রাজ্যটির মুসলিমদের প্রধান সংগঠন ‘ত্রিপুরা রাজ্য জমিয়ত উলামা হিন্দ’ অভিযোগ করে, বাংলাদেশে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের ওপর হামলায় প্রতিক্রিয়ায় ত্রিপুরার কিছু মসজিদেও সাম্প্রদায়িক হামলা ঘটিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

সংগঠনের একটি প্রতিনিধি দল ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেবের কার্যালয়ের পাশাপাশি রাজ্যের পুলিশ মহাপরিচালকের কাছে আনুষ্ঠানিক অভিযোগপত্র জমা দিয়েছে। তাতে হামলার ঘটনাটিকে ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের’ চেষ্টা হিসেবে অভিহিত করে সংগঠনটি অনতিবিলম্বে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে রাজ্য সরকারকে আহ্বান করা হয়।

নিজেদের ওপর ঘটা হামলার প্রতিবাদ করতে গিয়ে সংগঠনটি বাংলাদেশে হিন্দুদের ওপর চালানো সহিংসতার সমালোচনাও করেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় সংগঠনটির সভাপতি মুফতি তায়েবুর রহমান গণমাধ্যমকে বলেছেন, ত্রিপুরার হিন্দু বা মুসলিম কেউই বাংলাদেশে এই ধরনের সহিংসতা সমর্থন করে না।

তিনি বলেন, মুসলিম সম্প্রদায়ের কিছু মসজিদ ও আবাসিক এলাকায় হামলা হয়েছে, যার বেশিরভাগই ত্রিপুরার উত্তর, পশ্চিম ও গোমতি জেলার কিছু অংশে।

এদিকে, এরকম ঘটনাকে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণের অপচেষ্টা বলে মন্তব্য করেছে শাসকদল বিজেপি। দলটির মুখপাত্র নবেন্দু ভট্টাচার্য বলেছেন যে, এই ধরনের ঘটনা যাতে না ঘটে তা নিশ্চিত করার জন্য বিজেপি কর্মীরা সজাগ রয়েছে।

এ বিষয়ে ত্রিপুরা পুলিশের শীর্ষ কর্মকর্তাদের কোনো মন্তব্য পাওয়া যায়নি বলে উল্লেখ করা হয়েছে হিন্দুস্তান টাইমসের সে প্রতিবেদনটিতে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply