চৌমুহনীতে মন্দিরে হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ১৩

|

সংবাদ সম্মেলনে পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম।

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীতে ১৫ অক্টোবর শুক্রবার দুপুরে মন্দিরে হামলা, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনার সময় ধারণকৃত ভিডিও ফুটেজ দেখে আরও ৮জন ও তাদের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে আরও ৫জনসহ মোট ১৩জনকে গ্রেফতার করেছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

আজ শনিবার (২৩ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৭টায় পুলিশ সুপারের সভাকক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছেন, সুবর্ণচর উপজেলার চর বহুলা গ্রামের মো. ফরহাদ (২৬), চৌমুহনী পৌরসভার শামীম (২৭), রিপন (১৮), দুলাল (৪০), ছয়ানীর ইউনিয়নের জুয়েল (১৯), আরাফাত হোসেন আবীর (১৮), রাজীব (২৪) ও কামাল (৪৫)।

এদের সবাইকে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতাররকৃত অন্যরা হচ্ছেন, বেগমগঞ্জের শহীদ (৪৫), গণিপুরের হুমায়ুন (৬৩), আবু জুবায়ের অরিন (২৫), ইমাম হোসেন রাজু (২৮) ও আলাউদ্দিন (৩৫)।

জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম জানান, ওইদিনের হামলাটি পূর্ব পরিকল্পিত। হামলাকারীদের এক পক্ষ বাজারের প্রধান সড়কে থাকা পুলিশকে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। আর পুর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ৭টি গ্রুপ এক যোগে ৭টি মন্দিরে হামলা চালিয়েছে বলে আমরা বিভিন্ন সূত্রে নিশ্চিত হয়েছি। ভিডিও ফুটেজ দেখে সহিংসতাকারিদের চিহ্নিত করে শনিবার দিনব্যাপী অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে তাদেরকে গ্রেফতার করা হচ্ছে। বেগমগঞ্জে হামলার ঘটনায় এ পর্যন্ত ১০টি মামলায় ১২২জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। অন্যান্য আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply