এনসিবির ‘অন্যায়’ নিয়ে আদালতে মুখ খুলেছেন আরিয়ান!

|

ছবি: সংগৃহীত।

আরিয়ান কাণ্ড এখন নিয়েছে নতুন মোড়। ২০ দিন ধরে মুম্বইয়ের আর্থার রোড জেলে বন্দি শাহরুখ পুত্র। বার বার জামিন আবেদন করে হাতাশ হতে হচ্ছে প্রতিবার। এখন নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো (এনসিবি) আরিয়ানের হোয়াটসঅ্যাপের সূত্র ধরে তদন্ত করছে। এর জেরে অনন্যা পাণ্ডেসহ আরও এক অভিনেত্রীর নাম সামনে চলে এসেছে। তবে এবারে জামিন আবেদনের সময় এ নিয়ে মুখ খুলেছেন আরিয়ান।

আরিয়ানের দাবি, ফাঁসানো হচ্ছে তাকে। তিনি বলেন, ওই প্রমোদতরীতে আমার কাছে কোনো মাদক পায়নি এনসিবি। উল্টে আমার হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটের ভুল ও অন্যায় ব্যাখ্যা করে ফাঁসানো হচ্ছে।

এই মাদক মমলায় এখন পর্যন্ত ২০ জনকে আটক করা হয়েছে। আরিয়ানের দাবি, তাদের মধ্যে আরবাজ শেঠ মার্চেন্ট ছাড়া আর কারও সাথেই তার পরিচয় নেই। যে কথোপকথনের উপর ভিত্তি করে এনসিবি তদন্ত এগোচ্ছে, তার সাথে কোনো ধরনের ষড়যন্ত্রের যোগসূত্র নেই বলেও দাবি করেছেন তিনি।

এদিকে, বার বার জামিন বাতিল হওয়ার পর আগামী ২৬ অক্টোবর ফের আরিয়ানের জামিন শুনানির দিন ধার্য হয়েছে। এ দিনও তিনি জামিন পাবেন কি না তার কোনো নিশ্চয়তা নেই।

প্রভাবশালী হওয়ায় জামিন পেলে তথ্যপ্রমাণ নষ্টের চেষ্টা করতে পারেন আরিয়ান, জামিনের আবেদন খারিজ করার সময় একাধিক বার এই যুক্তি দেখানো হয়েছিল বিশেষ আদালতে। আরিয়ানের পাল্টা যুক্তি, আইনত আগে থেকেই ধরে নেওয়া যায় না, একজন ব্যক্তি প্রভাবশালী হলেই তিনি তথ্যপ্রমাণ লোপাট করার চেষ্টা করবেন।

তবে মুখ খুলেও বিশেষ কোনো লাভ হয়নি। জামিন পাননি তিনি। আগামী বৃহস্পতিবার (২৬ অক্টোবর) ফের জামিন শুনানির রায়ের জন্যই অপেক্ষা করতে হবে তাকে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply