যেমন ছিল এ সপ্তাহের পুঁজিবাজার

|

সপ্তাহব্যাপী নিম্নমুখী প্রবণতা ছিলো পুঁজিবাজারে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ, ডিএসইর প্রাধান সূচক কমেছে প্রায় ১৬৭ পয়েন্ট। কিছুটা কম ছিল লেনদেনের পরিমাণও। পাশাপাশি কমেছে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম। চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জেও ছিল একই রকম অবস্থা।

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সাধারণ মূল্যসূচক প্রায় ১৬৭ পয়েন্টের মত কমে দাড়িয়েছে ৭ হাজার ৭৬ পয়েন্ট। অন্যদিকে ডিএসইর শরিয়াহ সূচক কমেছে ৪৯ পয়েন্টের মত এবং ডিএসই-৩০ সূচক কমেছে প্রায় ২০ পয়েন্টের মত।

মোট লেনদেন কমেছে ৩৩ শতাংশেরও বেশি। হাতবদল হয় ৬ হাজার ৪৩ কোটি টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ৯ হাজার ৬২ কোটি টাকা। তালিকাভুক্ত ৩৮২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ৩১টির, কমেছে ৩৩৮টির, আর অপরিবর্তিত ছিল ৯টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দর। লেনদেন হয়নি ৪টি প্রতিষ্ঠানের।

ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এই সপ্তাহেও লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষে ছিল বেক্সিমকো। হাতবদল হয়েছে মোট ৪শ ৭৫ কোটি টাকার শেয়ার। ৩১৩ কোটি টাকার শেয়ার হাতবদল করে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল আইএফআইসি ব্যাংক। আর তৃতীয় স্থানে এসেছে ওরিয়ন ফার্মা।

প্রায় ১৬ ভাগেরও বেশি বেড়ে দরবৃদ্ধির তালিকায় গত সপ্তাহে শীর্ষে ছিল এসবিএসি ব্যাংক। এরপর আছে গোল্ডেন সন লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটির দর বেড়েছে ১৫ শতাংশের মত। আর তৃতীয় স্থানে বেক্সিমকো।

অন্যদিকে প্রায় সাড়ে পনের ভাগ কমে দরপতনের তালিকায় শীর্ষে ছিল আলহাজ টেক্সটাইল। এর পরের অবস্থানে যথাক্রমে বাংলাদেশ ল্যাম্পস লিমিটেড এবং মিঠুন কাটিং এ্যন্ড ডাইং।

অন্যদিকে দেশের আরেক স্টক এক্সচেঞ্জ, সিএসইতে মূল সূচক সিএএসপিআই দুই দশমিক শূন্য শতাংশ কমে দাড়িয়েছে ২০ হাজার ৬শ ৯৩ পয়েন্টে। কিছুটা নিম্নমুখী ছিল সিএসইএক্সে এবং সিএসই থার্টি সূচক। সপ্তাহজুড়ে মোট লেনদেন হয়েছে প্রায় ২শ ২৮ কোটি ৯৮ লাখ টাকার শেয়ার।

লেনদেন হওয়া ৩৩৫টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দর বেড়েছে ৪১টির। কমেছে ২৮৬টির। আর অপরিবর্তিত ছিল ৮টি কোম্পানির শেয়ারের দর। সিএসইতে গত সপ্তাহে লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষে ছিল এশিয়া ইন্সুরেন্স। প্রতিষ্ঠানটির মোট ২৪ কোটি ৪৬ লাখ টাকার শেয়ার হাতবদল হয়েছে। প্রায় সাড়ে ১২ কোটি টাকা লেনদেন নিয়ে পরের অবস্থানে ছিল বেক্সিমকো। তৃতীয় অবস্থানে ছিল আইএনটিএল ফাইন্যান্স।

দরবৃদ্ধির তালিকায় শীর্ষে ছিল গোল্ডেন সন লিমিটেড। দাম বেড়েছে প্রায় ১৫ ভাগ। এরপর যথাক্রমে আছে এসব্যাক ব্যাংক এবং মোস্তফা মেটাল।

অন্যদিকে ২৩ ভাগ কমে, দরপতনের তালিকায় শীর্ষে আছে আরিজা অ্যাগ্রো। এর পরের অবস্থানে যথাক্রমে ভিএফএস থ্রেড এবং বাংলাদেশ ল্যাম্পস।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply