বেতন বন্ধ ৪ মাস, টাকার অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছেন না আফগান শিক্ষকরা

|

ছবি: সংগৃহীত।

চার মাসেরও বেশি সময় ধরে বেতন পান না আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ হেরাতের শিক্ষকরা। আর তাই বকেয়া বেতন পরিশোধ করতে একত্রিত হয়ে তালেবানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রদেশটির শত শত শিক্ষক। স্থানীয় আফগান সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই।

সংবাদমাধ্যম তোলো নিউজ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) হেরাতের শত শত শিক্ষক জড়ো হয়ে বেতন ছাড়ের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে ইসলামিক আমিরাতের কাছে দাবি জানান। ভুক্তভোগী শিক্ষকরা বলছেন, বেতন না পেয়ে তারা তীব্র অর্থনৈতিক দুরাবস্থার মধ্যে রয়েছেন।

লতিফা আলিজাই নামে এক শিক্ষক বলছেন, আফগানিস্তানে শিক্ষকদের বেতন এমনিতেই কম। আর তাই দুর্দিনে ব্যবহারের জন্য সঞ্চয়ের মতো খুব বেশি অর্থ আমাদের হাতে থাকে না। কেবল দৈনন্দিন প্রয়োজন মেটানো যায়; এমন পরিমাণ অর্থই বেতন হিসেবে আমাদের দেয়া হতো।

আফগান সংবাদমাধ্যমগুলো বলছে, বেতন না পেয়ে নিজেদের পরিবার নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন শিক্ষকরা। যথেষ্ট পরিমাণ অর্থ না থাকায় পরিবারের শিশুদের জন্য খাবার ও ওষুধের জোগাড়ও করতে পারছেন না তারা।

অন্যদিকে সাদাত আতিফ নামে একজন স্কুল শিক্ষক জানান, ‘গত এক মাস ধরে আমার মেয়ে অসুস্থ। (টাকার অভাবে) আমি তাকে চিকিৎসকের কাছে নিতে পারছি না।’

তোলো নিউজ জানিয়েছে, প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী- কমপক্ষে ১৮ হাজার শিক্ষক গত চার মাস ধরে কোনো বেতন পাননি। তাদের মধ্যে ১০ হাজারই নারী শিক্ষক।

শিক্ষকদের বেতন না পাওয়ার বিষয়টি পরোক্ষভাবে স্বীকার করে নিয়েছেন হেরাতের শিক্ষা বিষয়ক দফতরের প্রাদেশিক প্রধান শুহাবুদ্দিন সাকিব। তিনি বলছেন, শিক্ষকদেরকে শিগগিরই এক মাসের বেতন দেওয়া হবে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply