৫শ টাকার নিচে মিলছে না দেশি মুরগি

|

পোল্ট্রি বাজারের উত্তাপ বেড়েই চলেছে। কয়েক দিনের ব্যবধানে কেজিতে ৬০ থেকে ৭০ টাকা বেড়েছে ব্রয়লারের দাম। ৫শ টাকার নিচে মিলছে না দেশি মুরগি। এই নৈরাজ্যের জন্য ফিডের সিন্ডিকেটকে দুষছেন ব্যবসায়ীরা। অন্যদিকে সুখবর নেই মাছ বাজারেও।

গরু ও খাসির মাংসের দোকানে এখন আর ভিড় হয় না। কোনো উদ্যোগেই কমেনি দাম। তাই বাড়তি আয়োজন ছাড়া এর ছায়াও মাড়ান না নিম্ন ও মধ্যবিত্তরা। এখনো ৬শ টাকার আশপাশে বিকোচ্ছে গরুর মাংস। খাসির কেজি ৮০০ টাকা।

তাই আমিষের চাহিদা মেটাতে নাগরিকের বড় ভরসা পোল্ট্রি। কিন্তু সে দামেও আগুন লেগেছে কয়েক সপ্তাহ ধরে। তাই অনেক দোকান ঘুরেও সোনালি জাতের মুরগি কিনে স্বস্তি পাচ্ছেন না ব্যবসায়ীরা। শেষপর্যন্ত তাদের সমঝোতা করতে হয় পকেটের সাথে। তাদের যুক্তি, ফিডের বাজারে নৈরাজ্য চলছে। আগের তুলনায় বেড়েছে চাহিদাও।

সাধারণত মৌসুমে ইলিশের যোগান বাড়লে অন্য মাছের চাহিদায় প্রভাব পড়ে। কমে দামও। কিন্তু সবশেষ মৌসুমে তেমননি ঘটেনি। তাই মাঝারি আকারে রুই কাতলের কেজি ৩শ টাকা। ৬শ টাকা গুনতে হবে পাবদা ও বোয়ালের জন্য। ছোট চিংড়ির কেজি ৫শ টাকা। যদিও ব্যবসায়ীদের দাবি পরিস্থিতি বদলাবে আগামী সপ্তাহেই।

আগামী শীতকালীন সবজি নিয়ে আপাতত কোনো সুখবর নেই। দোকানে ৫০ টাকার নিচে মিলবে না কোনো পণ্য।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply