আমির খানের বিরুদ্ধে হিন্দু ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ বিজেপির

|

ছবি: সংগৃহীত।

বলিউড অভিনেতা আমির খানের একটি বিজ্ঞাপন নিয়ে আপত্তি জানিয়ে ওই সংস্থাকে চিঠি দিয়েছে বিজেপি সংসদ সদস্যরা। তাদের অভিযোগ, ওই বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে হিন্দু ভাবাবেগে আঘাত করা হয়েছে। খবর জি নিউজের।

সম্প্রতি একটি টায়ার প্রস্তুতকারক সংস্থার বিজ্ঞাপনে দেখা যায়, আমির খান রাস্তায় আতশবাজি পোড়াতে বারণ করছেন। কর্নাটকের উত্তর কন্নড়ের বিজেপি সাংসদ অনন্তকুমার হেগড়ের দাবি, যেভাবে রাস্তায় বাজি পোড়াতে বারণ করছেন আমির, ঠিক তেমনই নমাজের নামে রাস্তা বন্ধ করে রাখা এবং মসজিদের মাইক থেকে আজানের ধ্বনি নিয়েও কিছু বলা উচিত।

গত ১৪ অক্টোবর, টায়ার প্রস্তুতকারক সংস্থার এক কর্তাকে লেখা চিঠিতে বিজেপি সাংসদ লিখেছেন, বিজ্ঞাপনে যে বার্তা দেওয়া হচ্ছে, তা হিন্দুদের মধ্যে অশান্তি সৃষ্টি করছে। চিঠিতে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন, ভবিষ্যতে সংস্থাটি হিন্দু ভাবাবেগের প্রতি সম্মান দেখাবে।

চিঠিতে বিজেপি সাংসদ লিখেছেন, আপনার সংস্থার সাম্প্রতিক বিজ্ঞাপন, যেখানে আমির খান সাধারণ মানুষকে পরামর্শ দিচ্ছেন রাস্তায় বাজি না পোড়ানোর, তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়। এই প্রসঙ্গে আমি আরও একটি সমস্যার দিকে আপনাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই, যেখানে প্রতি শুক্রবার নমাজের নামে এবং অন্যান্য উৎসবের নামে রাস্তা বন্ধ করে রাখেন মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষরা। নমাজের সময় যখন রাস্তা বন্ধ করে রাখা হয়, তখন অ্যাম্বুলেন্স ও দমকলের গাড়ি আটকে পড়ে। মসজিদ থেকে আজানের ধ্বনি সব সময়ই অনুমোদিত মাত্রা ছাড়িয়ে যায়।

চিঠিতে তিনি আরও লেখেন, হিন্দুদের প্রতি যুগ যুগ ধরে যে বঞ্চনা করা হয়েছে, আমি নিশ্চিত, একজন হিন্দু হিসেবে তা আপনিও অনুভব করতে পেরেছেন। বর্তমানে হিন্দু বিরোধী অভিনেতাদের গোষ্ঠী সর্বদা হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত দিতে তৎপর। কিন্তু কখনোই তাদের সম্প্রদায়ের ভুল নিয়ে ওদের সরব হতে দেখা যায় না।

কয়েক দিন আগেই একটি পোশাক প্রস্তুতকারক সংস্থা বিজ্ঞাপনে উর্দু ভাষা ব্যবহারের কারণে বিজেপি-র রোষের মুখে পড়েছিল। বিজেপি সাংসদের আপত্তিতে শেষ পর্যন্ত বিজ্ঞাপনটি তুলে নিতে বাধ্য হয় সংস্থাটি। তার অব্যবহিত পরই আরও একটি বিজ্ঞাপনে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ বিজেপি-র।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply