যে কারণে বিশ্বকাপে রাখা হয়নি ডি ভিলিয়ার্সকে

|

ছবি: সংগৃহীত

২০১৮ সালের মে মাসে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার মারকুটে ব্যাটসম্যান আব্রাহাম বেঞ্জামিন ডি ভিলিয়ার্স। যদিও অবসর ভেঙে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত হওয়া ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে খেলতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তাকে দলে ফেরার সে সুযোগ দেয়নি দক্ষিণ আফ্রিকার ক্রিকেট বোর্ড। সাবেক প্রোটিয়া কোচ লিন্ডা জোন্ডি দিয়েছেন এর ব্যাখ্যা।

সাবেক এই দক্ষিণ আফ্রিকান নির্বাচক বলেন, যখন এবি আমার কাছে তার অবসরের সিদ্ধান্ত জানাতে আসে তখন আমি তাকে ওয়ার্ল্ড কাপের পরে অবসর নিতে বলি। কারণ এবি’কে আমাদের বিশ্বকাপে দরকার ছিল। সে যদি দুয়েকটা সিরিজের জন্য অবসর চাইত সেটি কোনো সমস্যা ছিল না। কিন্ত সে এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। এরপর বিশ্বকাপের আগে দলের তখনকার অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস আমার কাছে এসে জানায়, এবি বিশ্বকাপে খেলতে চায়। কিন্তু আমি তা অগ্রাহ্য করি। কারণ আমার মনে হয়েছে এটা বিশ্বকাপ স্কোয়াডে থাকা অন্য কোনো সদস্যের ওপর অবিচার করা হবে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছাড়লেও এখনও আইপিএলসহ বিভিন্ন ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেট খেলে যাচ্ছেন মিস্টার ৩৬০° নামে পরিচিত এই বিধ্বংসী উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে টেস্ট ক্রিকেটে মোট ১১৪ ম্যাচ খেলে পঞ্চাশের ওপর এভারেজ নিয়ে ৮৭৬৫ রান করেছেন এবি। আর ওয়ানডেতে ২২৮ ম্যাচ খেলে ৯৫৭৭ রান করেন এ তারকা। যেখানে ম্যাচপ্রতি তার রানের গড় তেপ্পান্নর ওপরে। টি-টোয়েন্টিতেও ৭৮ ম্যাচ খেলে করেছেন ১৬৭২ রান।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply