সহজ গ্রুপে বাংলাদেশ!

|

ছবি: সংগৃহীত

চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপিংয়ের পর আইসিসি জানিয়েছিল, প্রথম রাউন্ডে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা কোয়ালিফাই করলে দল দুটি কোন গ্রুপে খেলবে তা আগে থেকেই নির্ধারিত। তবে বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার পর মাঝপথে হুট করেই সেই নিয়মে পরিবর্তন এনেছে আইসিসি। যাতে ভারত-পাকিস্তানের বদলে অনেকটা সহজ গ্রুপেই পড়ছে বাংলাদেশ।

সুপার টুয়েলভ শুরুর আগে প্রথম রাউন্ডে ‘এ’ গ্রুপে থাকা শ্রীলঙ্কা, আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস ও নামিবিয়া লড়ছে পরস্পরের বিপক্ষে। আর ‘বি’ গ্রুপে স্কটল্যান্ড, পাপুয়া নিউগিনি ও ওমানের সাথে লড়ছে বাংলাদেশ।

নিয়ম অনুযায়ী, প্রতি গ্রুপের শীর্ষ দুটি দলই সুযোগ পাবে সুপার টুয়েলভে খেলার, বাদ পড়বে বাকি দুই দল। আইসিসি জানিয়েছিল, বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা নিজ নিজ গ্রুপে চ্যাম্পিয়ন হোক বা রানারআপ হোক, সুপার টুয়েলভে টাইগাররা ‘গ্রুপ টু’-তে অর্থাৎ এবং লঙ্কানরা ‘গ্রুপ ওয়ান’-এ খেলবে।

কিন্তু সেই নিয়মে হঠাৎ করেই পরিবর্তন এনে আইসিসি মঙ্গলবার জানিয়েছে, ‘এ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল সুপার টুয়েলভে ‘গ্রুপ ওয়ান’-এ এবং রানার-আপ দল ‘গ্রুপ টু’-তে খেলবে। অনুরূপভাবে ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন দল ‘গ্রুপ টু’তে এবং রানার-আপ দল ‘গ্রুপ ওয়ান’-এ খেলবে।

সেক্ষেত্রে স্কটল্যান্ডের কাছে হেরে ‘গ্রুপ টু’-তে থাকা ভারত-পাকিস্তানের সাথে খেলা পড়ছে না বাংলাদেশের। ‘বি’ গ্রুপে বাংলাদেশ রানার-আপ হলে সুপার টুয়েলভে খেলতে হবে ‘গ্রুপ ওয়ান’ এ। যে গ্রুপে আছে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। নিয়ম পরিবর্তনের কারণে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা দুই দলই সুপার টুয়েলভে পড়তে পারে একই গ্রুপে।

এর আগে আগস্টে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সূচি প্রকাশের দিনই আইসিসি জানিয়েছিল, বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা যেকোনোভাবে প্রথম রাউন্ডে পার হতে পারলেই ‘বি-১’ ও ‘এ-১’ হিসেবে বিবেচিত হবে। অর্থাৎ রানার্সআপ হলেও ‘বি-১’ হিসেবে সুপার টুয়েলভে ‘গ্রুপ-২’ তে পড়ার কথা বাংলাদেশের। কিন্তু সংশোধনী পাঠিয়ে আইসিসি জানিয়েছে এমনটি হচ্ছে না। টুর্নামেন্টের তিনদিন পার হওয়ার পর বদলে ফেলা হয়েছে গ্রুপ সিডিং।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply