কলিন পাওয়েলের মৃত্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক

|

ছবি: সংগৃহীত

সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী কলিন পাওয়েলের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে. আব্দুল মোমেন।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আন্টোনি জে. ব্লিনকেনের কাছে প্রেরিত এক শোকপত্রে তিনি বলেন, কলিন পাওয়েল ছিলেন একজন মহান নেতা ও যোদ্ধা। যিনি তার পুরো জীবন নিজ দেশের সেবায় উৎসর্গ করেছেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সমকালীন বৈদেশিক নীতি নির্ধারণে তার অগ্রণী ভূমিকাসহ অনেক অবদানের জন্য কলিন পাওয়েল স্মরণীয় হয়ে থাকবেন। পাওয়েল তার কাজ এবং কূটনৈতিক দক্ষতার জন্য দেশে বিদেশে খ্যাতি অর্জন করেছেন। ইরাকের কাছে ‘ব্যাপক বিধ্বংসী অস্ত্রসম্ভার’ থাকার ভুল তথ্যের বিষয়টি স্বীকার করে নেয়ার মতো নৈতিক সাহসও তিনি দেখিয়েছেন।

শোকপত্রে ড. মোমেন পাওয়েলের মৃত্যুতে অপূরণীয় ক্ষতির জন্য তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতিও গভীর সমবেদনা জানান।

উল্লেখ্য, সোমবার (১৮ অক্টোবর) স্থানীয় সময় সকালে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় ৮৪ বছরের করিন পাওয়েলের। সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশের আমলে আমেরিকার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিলেন তিনি। শুধু তাই নয়, মার্কিন সেনাবাহিনীর ‘জয়েন্ট চিফ অফ স্টাফস’-এর চেয়ারম্যান পদেও ছিলেন এ রাজনীতিবিদ।

অবশ্য কর্মজীবনে নানা বিতর্কে বিদ্ধও হয়েছেন কলিন পাওয়েল। তার মধ্যে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে ইরাকে সাদ্দাম হোসেনের বিরুদ্ধে যুদ্ধের সমর্থনে জাতিসংঘে ভাষণ দেয়া। আন্তর্জাতিক মঞ্চে দাঁড়িয়ে তিনি দাবি করেছিলেন যে, গণহত্যার হাতিয়ার তৈরি করছে ইরাক। যদিও কর্মজীবনের শেষের দিকে নিজের ওই বয়ান নিয়ে যথেষ্ট অনুতাপ করেন কলিন পাওয়েল।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply