খাচ্ছেন না খাবার, কথা-বার্তাও কম, আরিয়ানের স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বিগ্ন জেল কর্তৃপক্ষ

|

ছবি: সংগৃহীত।

দুই সপ্তাহেরও বেশি সময় ধরে কারাগারে আছেন শাহরুখ পুত্র আরিয়ান খান। মাদক কাণ্ডে গত ২ অক্টোবর একটি প্রোমোদতরী থেকে গ্রেফতার করা হয় তাকে। এরপর থেকেই জেলে আছেন ‘বাদশাহ’ পুত্র। সেখানে বিশেষ কোনও ব্যবস্থা না করায় সাধারণ একজন কয়েদির মতো দিন কাটছে তার। এরই মধ্যে কারাকর্তৃপক্ষ তার স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করলো।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকা বলছে, জেলে আপাতত বাড়ি থেকে খাবার আনার অনুমতি পাননি আরিয়ান। যদিও তার খাবার-দাবারের জন্য সাড়ে চার লাখ রুপির মানি অর্ডার পাঠিয়েছেন শাহরুখ। সেই টাকায় আপাতত জেলের ক্যান্টিন থেকেই খাবার খেতে হচ্ছে তাকে। প্রাসাদতুল্য ‘মান্নাত’ ছেড়ে তাই স্বাভাবিকভাবে জেলের খাবারে রুচি আসছে না আরিয়ানের।

কারা কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, জীবনের এতো বড় পরিবর্তন মেনে নিতে পারছেন না আরিয়ান। কারো সাথে কথা বলছেন না। একই মামলায় তার সাথে গ্রেফতার হওয়া অন্য সঙ্গীদের সাথেও দেখা করতে চাইছেন না আরিয়ান। জেলের খাবারও মুখে তুলতে পারছেন না, সেখানকার জীবনযাপনের সাথে মানিয়ে নিতে পারছেন না।

অন্যান্য বন্দিদের থেকে আরিয়ানকে আলাদা সেলে রাখা হয়েছে। আপাতত কয়েদিদের নির্ধারিত পোশাক পরতে হচ্ছে না তাকে। বাড়ি থেকে যে পোশাক এনেছিলেন তাতেই কাজ চালাতে হচ্ছে। পাশাপাশি জেলের নিয়ম অনুযায়ী, ভোরে উঠিয়ে দেয়া হচ্ছে শাহরুখ পুত্রকে, নেই ইন্টারনেট ব্যবহারের অনুমতি। তাই সবমিলিয়ে এবারে আরিয়ানের শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তায় পড়েছে কারাকর্তৃপক্ষ।

যদিও জেলের মধ্যেই চলছে আরিয়ানের কাউন্সিলিং। মানসিকভাবে যাতে তিনি বিধ্বস্ত হয়ে না পড়েন সেই চেষ্টা করা হচ্ছে। এদিকে আগামী ২০ অক্টোবর পর্যন্ত এই মামলার শুনানি স্থগিত রেখেছেন আদালত। সুতরাং তার আগ পর্যন্ত জেলেই বন্দি থাকতে হবে। তবে ছেলেকে জেল থেকে ছাড়িয়ে আনতে সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছেন শাহরুখ।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply