ধোনিকে ‘কিং’ বলায় ক্ষেপেছেন কোহলির ভক্তরা

|

ছবি: সংগৃহীত

মহেন্দ্র সিং ধোনিকে ‘কিং’-এর তকমা দিয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। তাতেই ক্ষুব্ধ হয়ে গেলেন বিরাট কোহলিদের ভক্তদের একাংশ। তাদের দাবি, ভারতীয় দলে একটাই ‘কিং’। সেটা হলেন কোহলি।

রোববার (১৭ অক্টোবর) বিসিসিআইয়ের তরফে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে টিম ইন্ডিয়ার শিবিরের ছবি পোস্ট করা হয়। সঙ্গে পোস্ট করা হয় ধোনির ছবিও। ওই পোস্টে লেখা হয়, রাজাকে (কিং) অভিনন্দন জানানো হচ্ছে। মেন্টর হিসেবে নতুন ভূমিকায় টিম ইন্ডিয়ায় ফিরে এলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।

সেই ‘কিং’-এর তকমায় ক্ষেপেছেন কোহলির ভক্তদের একাংশ। তেমনই একজন সৌরভ গাঙ্গুলির বোর্ডের প্রতি ক্ষোভ ঝেড়ে বলেন, একজনই রাজা আছেন। সঙ্গে বিরাটের ছবি পোস্ট করেন। একইসুরে আরও এক বিরাট ভক্ত বলেন, শব্দটা হল কিং। একটি দলে দু’জন রাজা থাকতে পারেন না। একটাই রাজা, তিনি হলেন কিং কোহলি।

কেউ কেউ ধোনির ছবি জুম করে বিরাটের ছবি দেখিয়ে বলেছেন, ইনিই আসল রাজা। অনেকেই আবার ‘কিং’-এর তকমা যুদ্ধে সামিল না হয়ে ধোনি-কোহলির যুগলবন্দীতে বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখছেন।

এমনিতে জনসমক্ষে বরাবরই বিরাট এবং ধোনির সম্পর্ক অত্যন্ত ভালো। ড্রেসিংরুমের অভ্যন্তরেও তাদের মধ্যে রেষারেষির কোনো খবর তেমন জোর পায়নি। কোহলি তো বরাবর ধোনিকে বাড়তি সম্মান দিয়েছেন। শনিবারও ধোনির প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন। তিনি বলেন, আমাদের ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই সে আমাদের সকলের মেন্টর ছিল। দলের সঙ্গে আমরা যতদিন খেলেছি, ততদিন মেন্টর ছিল ধোনি। আমরা আবার সেই একই কাজ করার সুযোগ পেয়েছি।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে ধোনি ক্রিকেটের সব ফরম্যাটের অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেয়ার পর পুরোপুরি টিম ইন্ডিয়ার দায়িত্ব নেন কোহলি। ধোনির উপস্থিতিতেই ২০১৯ সালের বিশ্বকাপে ভারতকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন কোহলি। এবার অবশ্য মাঠে কোহলির পাশে থাকবেন না ধোনি। মাঠের বাইরে থেকেই দলকে বিভিন্ন টিপস দেবেন।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply