দায় এড়াতে বিশ্ব ক্ষুধা সূচক নিয়ে জাতিসংঘকেই দোষারোপ ভারতের

|

ছবি: সংগৃহীত।

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) প্রকাশিত একটি রিপোর্টে বিশ্ব ক্ষুধার সূচকে পিছিয়ে গেছে ভারত। এই সূচক অনুযায়ী বাংলাদেশসহ পাকিস্তান এমনকি নেপালের চেয়েও পেছনে দেশটি। তবে এবারে এর দায় সম্পূর্ণভাবে জাতিসংঘের ওপরই চাপিয়ে দিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের।

মূলত, বিশ্ব ক্ষুধা সূচকের নতুন এ তালিকায় ১১৬টি দেশের মধ্যে ভারত নেমে এসেছে ১০১ নম্বরে। বিগত বছরগুলোতে দেশটির অবস্থান একই হারে নিম্নগতিতে। এ নিয়ে এবারে বিরোধী দলের নিশানায় পরিণত হয় সরকার। আর তাই এবারে দায় এড়াতে এই সূচক নির্মাণের গোটা পদ্ধতিকেই অবাস্তব বলে উড়িয়ে দিয়েছে ভারত।

এ নিয়ে দেশটির কেন্দ্রীয় নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রণোলয়ের পক্ষ থেকে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে দাবি করা হয়েছে, ভালোভাবে তথ্য যাচাই না করেই এই রিপোর্ট প্রকাশ করেছে এফএও।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, অপুষ্টিতে থাকা জনসংখ্যার অনুপাতের যে পরিসংখ্যান তুলে ধরেছে জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও), তা মোটেই বাস্তবসম্মত নয়। যে পদ্ধতিতে ওই রিপোর্ট তৈরি করা হয়েছে, তা-ও সঠিক নয়।

উল্লেখ্য, বিশ্বের কোনও দেশ অপুষ্টি ও ক্ষুধার সমস্যায় কতটা জর্জরিত, সেই সংক্রান্ত বিষয় নিয়েই কাজ করে আয়ারল্যান্ডের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ‘কনসার্ন ওয়ার্ল্ডওয়াইড’ এবং জার্মান সংস্থা ‘ওয়েল্ট হাঙ্গার হিলফ’। তার ভিত্তিতেই তৈরি হয়েছে ক্ষুধার সূচকের রিপোর্ট। এ ক্ষেত্রে নির্ণায়ক ভূমিকা পালন করে যে কোনও দেশের সমসাময়িক অর্থনৈতিক অবস্থান, শিশু স্বাস্থ্য এবং সম্পদ বণ্টনের ক্ষেত্রে অসাম্যের মতো বিষয়গুলি। কেন্দ্রীয় সরকারের দাবি, সঠিকভাবে তথ্য সংগ্রহ না করেই এই রিপোর্ট তৈরি করেছে প্রকাশক সংস্থা।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply