ঢাকা ও চট্ট্রগ্রামে সপ্তাহের পুঁজিবাজারে ছিল নিম্নমুখী

|

গত সপ্তাহে পুঁজিবাজারে ছিল নিম্নমুখী প্রবণতা। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ, ডিএসইর প্রধান সূচক কমেছে প্রায় ২৯ পয়েন্টের মতো। কিছুটা কম ছিল লেনদেনের পরিমাণও। পাশাপাশি বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দাম কমেছে। অন্যদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ, সিএসইতেও একই অবস্থা।

দেশের প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের সাধারণ মূল্যসূচক প্রায় ১০০ পয়েন্টের মত কমে দাঁড়িয়েছে, ৭ হাজার ২শ ৪৩ পয়েন্ট। অন্যদিকে ডিএসইর শরিয়াহ সূচক কমেছে ২৮ পয়েন্টের মত এবং ডিএসই ৩০ সূচক কমেছে প্রায় ৪৮ পয়েন্ট।

মোট লেনদেন কমেছে ২৯ শতাংশ। হাতবদল হয় ৯ হাজার ৬২ কোটি টাকা। এর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছে ১২ হাজার ৭২৪ কোটি টাকা। তালিকাভুক্ত ৩৮২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ১২৪টির, কমেছে ২৩১টির, আর অপরিবর্তিত ছিল ২৩টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের দর। লেনদেন হয়নি ৪টি প্রতিষ্ঠানের।

ধারাবাহিকতা বজায় রেখে এই সপ্তাহেও লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষে ছিল, লাফার্জ হোলসিম। হাতবদল হয়েছে মোট ৫শ ৮৪ কোটি টাকার শেয়ার। ৪৬৪ কোটি টাকার শেয়ার হাতবদল করে দ্বিতীয় অবস্থানে ছিল ওরিয়ন ফার্মা। আর তৃতীয় স্থানে এসেছে আইএফআইসি ব্যাংক।

প্রায় ৩০ ভাগ বেড়ে দরবৃদ্ধির তালিকায় গত সপ্তাহে শীর্ষে ছিল এনআরবিসি ব্যাংক। এরপর আছে শিপার্ড ইন্ডাস্ট্রিজ। প্রতিষ্ঠানটির দর বেড়েছে ২৪ শতাংশের বেশি। আর তৃতীয় স্থানে ফারইস্ট নিটিং এন্ড ডাইং।

আর প্রায় ১৩ ভাগ কমে দরপতনের তালিকায় শীর্ষে ছিল ড্যাফোডিল কম্পিউটার্স। এর পরের অবস্থানে যথাক্রমে ইউনিক হোটেল এন্ড রিসোর্ট এবং ইনভয় টেক্সটাইল।

অন্যদিকে দেশের আরেক স্টক এক্সচেঞ্জ, সিএসইতে মূল সূচক সিএএসপিআই ১ দশমিক ৫১ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ২১ হাজার ১শ ১৬ পয়েন্টে। অন্যদিকে কিছুটা নিম্নমুখী ছিল সিএসইএক্সে এবং সিএসই থার্টি সূচক। সপ্তাহজুড়ে মোট লেনদেন হয়েছে প্রায় ৩শ ২৪ কোটি ৯৯ লাখ টাকার শেয়ার।

লেনদেন হওয়া ৩৪২টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দর বেড়েছে ১১৪টির। কমেছে ২১৬টির। আর অপরিবর্তিত ছিল ১২টি কোম্পানির শেয়ারের দর।

সিএসইতে গত সপ্তাহে লেনদেনের ভিত্তিতে শীর্ষে ছিল ইন্টারন্যাশনাল ফাইনান্স ইনভেস্ট অ্যান্ড এন্ড কমার্স ব্যাংক। প্রতিষ্ঠানটির মোট ১৮ কোটি ৮৫ লাখ টাকার শেয়ার হাতবদল হয়েছে। প্রায় সাড়ে ১৫ কোটি টাকা লেনদেন নিয়ে পরের অবস্থানে ছিলো ওরিয়ন ফার্মা। তৃতীয় অবস্থানে ছিল আইটি কনসালটেন্স লিমিটেড।

দরবৃদ্ধির তালিকায় শীর্ষে ছিল শিপার্ড ইন্ড্রার্টিজ। দাম বেড়েছে প্রায় ২৯ ভাগ। এরপর যথাক্রমে আছে এনআরবিসি ব্যাংক এবং ফারইস্ট নিটিং এন্ড ডাইং।

অন্যদিকে সাড়ে ষোল ভাগ কমে দরপতনের তালিকায় শীর্ষে আছে এইচআর টেক্সটাইল। এর পরের অবস্থানে যথাক্রমে ইনভয় টেক্সটাইলস লি. এবং ঈমাম বাটন ইন্ডাস্ট্রিজ।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply