টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের খুঁটিনাটি; যোগ হচ্ছে ডিআরএস

|

ছবি: সংগৃহীত

রোববার (১৭ অক্টোবর) আনুষ্ঠানিকভাবে মাঠে গড়াচ্ছে টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সপ্তম আসর। যেখানে প্রথমদিনই মাঠে নামবে বাংলাদেশ। স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচটি শুরু হবে রাত ৮ টায়। কোন ফরম্যাটে হবে এবারের আসর, কতগুলো দল থাকছে আর কতজন আম্পায়ার, নতুন কী কী নিয়ম আছে এবারের আসরে, দেখে নেয়া যাক।

সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ওমানে হবে এবারের বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো। এর আগে ২০২০ সালে অস্ট্রেলিয়ায় হওয়ার কথা ছিল সংক্ষিপ্ত ভার্সনের এই আসরটি। কিন্তু করোনার কারণে সেটি স্থগিত করে দেয় আইসিসি। পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত হয় ২০২১ সালের আসর বসবে ভারতে। আর ২০২২ বিশ্বকাপের আয়োজক হবে অস্ট্রেলিয়া। কিন্তু করোনা মহামারির কারণে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সরিয়ে আনা হয় সংযুক্ত আরব আমিরাতে। প্রথমবারের মত বৈশ্বিক আইসিসি টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে যাচ্ছে দেশটি। সেই সাথে কোনো টেস্ট খেলুড়ে দেশের বাইরে ক্রিকেট বিশ্বকাপ আয়োজনও এটাই প্রথম।

২৯ দিনের দীর্ঘ এই টুর্নামেন্টটি হবে কয়েক ধাপে। প্রথম ধাপে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সহ আটটি দল অংশ নেবে গ্রুপ পর্বে। সেখান থেকে শীর্ষ ৪ দল উঠবে আসরের সুপার পর্বে। আগেই জায়গা নিশ্চিত করে রাখা আট দলের সাথে গ্রুপ পর্ব থেকে উঠে আসা ৪ দল মিলিয়ে হবে সুপার ১২ পর্ব। ৬ দল করে দুই গ্রুপে ভাগ হয়ে হবে এই পর্ব। এরপর নকআউট পর্বে থাকছে ২ সেমিফাইনাল ও ফাইনাল।

এবারের বিশ্বকাপে দুটি নতুন নিয়ম যোগ হচ্ছে। প্রথমবারের মত যোগ হবে ডিসিশিন রিভিউ সিস্টেম বা ডিআরএস। ক্রিকেটের এই সংস্করণে সবশেষ ৬ আসরে এই সিস্টেম ছিল না। প্রতিটি দল সর্বোচ্চ দুটি করে রিভিউ নিতে পারবে।

দ্বিতীয়টি হচ্ছে, বৃষ্টি বাধায় কিংবা অন্যান্য কারণে খেলায় দেরি হলে ন্যূনতম ওভারের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। আগের নিয়ম অনুযায়ী পাঁচ ওভার এবারও কার্যকর থাকবে গ্রুপ পর্বের ম্যাচে। তবে নকআউট পর্বে সেটি বেড়ে দাঁড়াবে ১০ ওভারে।

৪৫ ম্যাচের এবারের আসর পরিচালনা করবেন ১৬ জন আম্পায়ার ও ৪ জন ম্যাচ রেফারি। সর্বোচ্চ ৫ জন অফিশিয়াল রয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply