যে কারণে কলম্বাসকে সরিয়ে বসানো হচ্ছে আদিবাসী নারীর মূর্তি

|

কলম্বাসের মূর্তিটি হটিয়ে মেক্সিকোতে বসছে ইয়াং ওমেন অফ আমাজাক নামের এই মূর্তিটির একটি রেপ্লিকা।

মেক্সিকো সিটিতে স্থাপিত আমেরিকার আবিষ্কারকখ্যাত ইতালিয়ান পর্যটক ক্রিস্টোফার কলম্বাসের ভাস্কর্য সরিয়ে সেখানো স্থাপন করা হবে মেক্সিকান আদিবাসী এক নারীর ভাস্কর্য। গত বছর থেকেই মেক্সিকোর আদিবাসী অধিকারকর্মীরা কলম্বাসের ভাস্কর্যটি ভেঙে ফেলার হুঁশিয়ারি দিচ্ছিলেন। তবে এবার বাস্তবায়ন হচ্ছে আদিবাসী অধিকারকর্মীদের দাবি।

বুধবার (১৩ অক্টোবর) মেক্সিকো সিটির গভর্নর ক্লডিয়া শেইনবম ভাস্কর্য প্রতিস্থাপনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। শেইনবম জানান, কলম্বাসের ভাস্কর্যের জায়গায় প্রি-কলম্বিয়ান যুগের ইয়াং ওমেন অফ আমাজাক নামক ভাস্কর্যটির একটি রেপ্লিকা স্থাপন করা হবে।

কিন্তু আদিবাসী অধিকারকর্মীরা কেন কলম্বাসের মূর্তিটি সরিয়ে সেখানে একজন আদিবাসী নারীর মূর্তি বসানোর দাবি করছেন? মূলত কলম্বাস পরবর্তী স্প্যানিশ ঔপনিবেশিক আমলে স্প্যানিশ কর্তৃক আদিবাসীদের ওপর চালানো বর্ণবাদী শাসনব্যবস্থার প্রতি ঘৃণা জানাতেই আদিবাসী অধিকারকর্মীরা কলম্বাসের স্থলে আদিবাসী নারীর মূর্তি স্থাপনের দাবি তোলে। ২০২০ সালেও আদিবাসী অধিকারকর্মীরা দক্ষিণ আমেরিকার বেশকিছু দেশে কলম্বাসের ভাস্কর্য ভেঙেছেন।

ক্রিস্টোফার কলম্বাস পনের শতকে স্প্যানিশ রাজদরবারের পৃষ্ঠপোষকতায় নিনা, পিন্টা ও স্যান্টা মারিয়া নামক ৩টি জাহাজ নিয়ে উত্তর আমেরিকার ভূখণ্ডে পৌঁছান। আর এর পরই সেখানে আরম্ভ হয় স্প্যানিশ দখলদারিত্বের। স্প্যানিশরা প্রথম থেকেই স্থানীয় আদিবাসীদের প্রতি নির্মম ছিল। আমেরিকার ভূখণ্ডে স্প্যানিশদের ঔপনিবেশিকতায় শুরু হয় নির্বিচারে গণহত্যা, ধর্ষণ, সম্পদ পাচার, দাস ব্যবসাসহ নানা অত্যাচার ও নিপীড়ন। আর এজন্যই বর্তমান সময়ের আদিবাসী অধিকারকর্মীরা আদিবাসীদের নির্মমতার শিকার হওয়ার পেছনে স্প্যানিশ কলোনিকে দায়ী করে।

কলম্বাসের মূর্তি প্রতিস্থাপনের ঘোষণাটি প্রথম এসেছিল গত ১২ অক্টোবর। দিনটি ছিল কলম্বাসের আমেরিকায় পদার্পনের ৫২৯ তম বার্ষিকী। সমগ্র যুক্তরাষ্ট্রে দিনটি কলম্বাস ডে হিসেবে উদযাপিত হলেও মেক্সিকোসহ অন্যান্য ল্যাটিন দেশে এই দিনটিকে বর্ণবাদের সূত্রপাতের প্রতীক মনে করা হয়। তাই তারা এই দিনটিকে ডে অফ দ্য রেস নামে চেনে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply