আজ বিশ্ব ডিম দিবস; জেনে নিন পুষ্টিগুণ

|

ছবি: সংগৃহীত

‘প্রতিদিনই ডিম খাই, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াই’ স্লোগানে আজ বাংলাদেশে পালিত হচ্ছে বিশ্ব ডিম দিবস। প্রাণিজ আমিষের চাহিদা পূরণ, সুস্বাস্থ্য বজায় রাখতে এবং জনসাধারণের মাঝে ডিম সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে দিবসটির গুরুত্ব রয়েছে।

অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনাতে সর্বপ্রথম ডিম দিবস পালিত হয়। ১৯৯৬ সালের সেই দিনের পর থেকে প্রতিবছর অক্টোবর মাসের দ্বিতীয় শুক্রবার পালিত হয়ে আসছে এ দিবস। সারাবিশ্বে দিনটি একসঙ্গে উদযাপন করা হয়। বাংলাদেশে সর্বপ্রথম ২০১৩ সালে ডিম দিবস পালিত হয়।

ছবি: সংগৃহীত

জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থার (এফএও) তথ্যানুযায়ী, ১ বছরে একজন মানুষের ন্যূনতম ১০৪টি ডিম খাওয়া উচিত। আমাদের দেশের মানুষ যে সংখ্যার অর্ধেকও পায়না বা খায়না। ডিমের নানা পুষ্টিগুণ থাকা সত্ত্বেও ডিম নিয়ে জনমনে রয়েছে নানা ভ্রান্ত ধারণা। ডিম প্রোটিনের একটি আদর্শ উৎস। প্রোটিনের চাহিদা পূরণে ডিম খাওয়া উচিত বলে মনে করেন পুষ্টি বিশেষজ্ঞরাও।

ডিম নিয়ে আমাদের মধ্যে নানা ভ্রান্ত ধারণা বিদ্যমান। চীনের এক গবেষণায় দেখা গেছে প্রতিদিন একটি করে ডিম খেলে হৃদরোগ ও স্ট্রোকের ঝুঁকি কমতে পারে। অনেকে মনে করেন দিনে একটির বেশি ডিম খাওয়া আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। তবে প্রতিদিন তিনটি করে ডিম অনায়াসে খাওয়া যায় বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

ছবি: সংগৃহীত

ডিম এমন একটি খাবার যা বিভিন্ন পদ্ধতিতে খাওয়া যায়। শুধু ডিম খেতে চাইলে সিদ্ধ করে বা ভেজে খাওয়া যায়। আবার রান্না করে ভাতের সাথেও খাওয়া যায়। ইদানিং ভর্তা করা ডিমও ভাতের সাথে ডিমপ্রেমীদের কাছে আকর্ষণীয় খাবার।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply