বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানি পান করেন নীতা আম্বানি, লিটার ৬৫ লক্ষ টাকা

|

নিতা আম্বানী ও পানির বোতল। ছব: সংগৃহীত।

আপনি যেসব পানি কিনে পান করেন তার ১ লিটারের দাম কতো হবে? সর্বোচ্চ কত টাকার পানি কিনেছেন আপনি? মাঝে মাঝে কোনো রেস্টুরেন্টে পানাহার করতে গিয়ে পানির দাম দিতে গিয়ে হয়তো চোখ ছানাবড়া হয়েছে আপনার। সেখানে আর কতো রেখেছে, ২০ টাকার পানি হয়তো আপনার কাছ থেকে ১০০ টাকা নিয়েছে। কিন্তু রিলায়্যান্সের মালিক মুকেশ আম্বানীর স্ত্রী নীতা আম্বানী যে পানি পান করেন, তার দাম শুনলে হতবাকই হবেন।

দাবি করা হয়, নীতা নাকি বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানি পান করেন। ৭৫০ মিলিলিটার পানির বোতলের দাম প্রায় ৬০ হাজার ডলার। যা বাংলাদেশি টাকায় ৫২ লক্ষ টাকা। তা হলে এবার হিসেব করে দেখেন, নীতার এক ঢোক পানির দাম কত পড়ে!

দাম না হয় জানলেন। দাম জানার পর আপনি বলতে পারেন এই পানি কি স্বর্ণ দিয়ে তৈরি? তাহলে জেনে নিন এই পানির কেন এত দাম। স্বাস্থ্যকে তরতাজা রাখতে যে পানি নীতা পান করেন তার নাম ‘অ্যাকোয়া ডি ক্রিস্টালো ট্রিবিউটো আ মদিগ্লিয়ানি’। এটি বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানির মধ্যে একটি। বোতলজাত ওই পানি আসে ফ্রান্স এবং ফিজি থেকে। দাবি করা হয়, এই পানি স্বর্ণভস্ম মিশ্রিত। ৫ গ্রাম স্বর্ণভস্ম থাকে এতে। যা মানবদেহের জন্য খুবই স্বাস্থ্যকর। সে জন্যই এই পানির দাম লক্ষ লক্ষ টাকা।

আরও কারণ আছে। শুধু পানি নয়, বোতলের জন্যও এই পানীয় জলের দাম এত বেশি। ২০১০ সালে ‘অ্যাকোয়া ডি ক্রিস্টালো ট্রিবিউটো আ মদিগ্লিয়ানি’ গিনেস বুকে বিশ্বের সবচেয়ে দামি পানির বোতল হিসেবে খ্যাতি পেয়েছিল। বোতলের নকশা তৈরি করেছিলেন ফার্নান্দো আলতামিরানো। চামড়ার খাপে থাকে ২৪ ক্যারেট সোনা দিয়ে তৈরি এই বোতল। এই ব্র্যান্ডের সবচেয়ে সস্তা বোতলের দাম ২৫ হাজার টাকা।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply