নাতিকে বাঁচাতে গিয়ে দাদাও মারা গেলেন বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে

|

বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দাদা ও নাতির মৃত্যু । পল্লী বিদ্যুতের বিরুদ্ধে অবহেলার অভিযোগ। তদন্ত কমিটি গঠন।

সিলেট ‍ব্যুরো:

সিলেটের কানাইঘাটে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে দাদা ও নাতির মৃত্যু হয়েছে। পল্লী বিদ্যুতের অবহেলার অভিযোগ। তদন্ত কমিটি গঠন।

সোমবার (৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার সদর ইউনিয়নের নিজ চাউরা পূর্ব গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। নিহতরা হলেন, চাউরা পূর্ব গ্রামের মাওলানা ফখর উদ্দিন (৭০) ও তার নাতি আরিফুল ইসলাম (৮)। দাদা-নাতির মর্মান্তিক মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা পল্লী বিদ্যুতের কানাইঘাট আঞ্চলিক কার্যালয় ঘেরাও করে। খবর পেয়ে কানাইঘাট থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে। এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি ঘঠন করেছে পল্লিবিদ্যুত সমিতি-২। আগামীকাল সরেজমিন পরিদর্শন করবে তদন্ত কমিটি।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রোববার রাতে নিজ চাউরা গ্রামের মাওলানা ফখর উদ্দিনের বাড়ির পাশে পল্লী বিদ্যুতের একটি মেইন লাইনের তার ছিঁড়ে মাটিতে পড়ে যায়। মাওলানা ফখর উদ্দিন নিজে ও এলাকার লোকজন বিদ্যুৎ কার্যালয়ে তার ছেঁড়ার বিষয়টি ফোন করে জানান। কিন্তু বিদ্যুৎ বিভাগের লোকজন তার সরাতে তাৎক্ষণিক কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। সকাল পর্যন্ত তারা ছেঁড়া লাইন মেরামত করেনি।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, সোমবার ফখর উদ্দিনের নাতি স্থানীয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র আরিফুল ইসলাম স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার সময় বিদ্যুতের ছেঁড়া তারে জড়িয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। নাতিকে বাঁচাতে ফখর উদ্দিন এগিয়ে গেলে তিনিও বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন। এতে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে কানাইঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, ‘দাদা-নাতির মৃত্যুর খবরে এলাকার বিক্ষুব্ধ লোকজন বিদ্যুৎ অফিস ঘেরাও করেছিলেন। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেছে। নিহতদের লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ এর ডিজিএম মুহম্মদ শাহীন রেজা ফরাজী জানান, এ ঘটনার পর একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তদন্ত কমিটি আজ কারিগরি তথ্য সংগ্রহ করছেন। আগামীকাল মঙ্গলবার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করবেন। স্থানীয়দের সাথে কথা বলবেন। তার প্রতিবেদন জমা দিবেন। কারও গাফিলতির প্রমাণ পেলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply