কবরস্থান নিয়ে দুই গ্রামবাসীর দ্বন্দ্ব, নবজাতকের মরদেহ দাফনে বাধা

|

দুই গ্রামবাসীর দ্বন্দ্বে নবজাতকের মরদেহ দাফনে বাধা।

পাবনা প্রতিনিধি:

পাবনার ভাঙ্গুড়ায় দুই গ্রামবাসীর দ্বন্দ্বে কবরস্থানে তালা দিয়ে মরদেহ দাফনে বাধা দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার পার ভাঙ্গুড়া ইউনিয়নের ভেড়ামারা ও চরপাড়া গ্রামের মধ্যে এই দ্বন্দ্ব চলছে।

রোববার রাতে কবরস্থানের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সামাদ খাঁর নির্দেশে ভেড়ামারা গ্রামের বাসিন্দারা কবরস্থানে তালা দিয়ে এক নবজাতকের মরদেহ দাফনে বাঁধা দেয়। এতে এলাকাবাসী থানা প্রশাসন ও জরুরী সেবা ৯৯৯ এ কল করে। পরে উপজেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ওই নবজাতকের মরদেহ দাফন করা হয়।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ভেড়ামারা ও চরপাড়া গ্রামের মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘদিন ধরে দ্বন্দ্ব চলছিল। এ অবস্থায় উভয় গ্রামের যৌথ কবরস্থানের ১০ শতক জমি দখল নিয়ে দ্বন্দ্ব আরও তীব্র হয়। এক পর্যায়ে গত সপ্তাহে ভেড়ামেরা গ্রামের বাসিন্দারা কবরস্থানের মূল ফটকে তালা দিয়ে চরপাড়া গ্রামের মানুষের মরদেহ দাফন বন্ধ করে দেয়।

এরপর চরপাড়ার বাসিন্দা মনিরুলের নবজাতক সন্তান রোববার বিকালে মারা যায়। পরে গ্রামের বাসিন্দারা ওই নবজাতককে দাফন করতে গেলে কবরস্থান তালাবদ্ধ থাকায় প্রায় তিন ঘণ্টা গেটের সামনে দাড়িয়ে থাকে। এতে নিরুপায় হয়ে চরপাড়া গ্রামের বাসিন্দারা থানা ও জরুরী সেবা ৯৯৯ এ কল করে অবগত করেন। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নবজাতকের মরদেহ দাফন সম্পন্ন করেন। তবে এখনো ওই এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

কবরস্থানের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সামাদ খাঁ বলেন, কবরস্থান সংলগ্ন এতিমখানার জমি নিয়ে বিরোধের কারণে চরপাড়া গ্রামের বাসিন্দাদের মরদেহ দাফনে বাধা দেয়া হয়েছিল। তবে থানা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বিষয়টি আপাতত সমাধান হয়েছে। এখন জমির সমস্যার সমাধান হলে তবে বিষয়টি স্থায়ী সমাধান হবে।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply