ঢাবির চিকিৎসাকেন্দ্রে ভর্তি পরীক্ষা দিলো করোনা আক্রান্ত শিক্ষার্থী

|

ছবি: সংগৃহীত

দীর্ঘ দুই বছর পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রথম দিন বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ক’ ইউনিটের পরীক্ষা নেয়া হয়। শুক্রবারের (১ অক্টোবর) এই পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেছেন করোনায় আক্রান্ত এক পরীক্ষার্থী। ওই শিক্ষার্থীর আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ বুদ্ধিজীবী ডা. মোহাম্মদ মোর্তজা চিকিৎসাকেন্দ্রে বিশেষ ব্যবস্থায় তার পরীক্ষা নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, তিন দিন আগে করোনা শনাক্ত কারণে আলাদাভাবে পরীক্ষা দিতে আবেদন করেন ওই শিক্ষার্থী। বিজ্ঞান অনুষদের ডিন কার্যালয়ে করা ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে আজ শুক্রবার অন্যসকল ভর্তিচ্ছুদের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রে বিশেষ ব্যবস্থায় তারও পরীক্ষা নেয়া হয়।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রের অতিরিক্ত প্রধান চিকিৎসা কর্মকর্তা সারওয়ার জাহান মুক্তাফি যমুনা টেলিভিশনকে বলেন, গত রোববার ওই শিক্ষার্থী করোনায় আক্রান্ত হন। এরপর তিনি অনুরোধ করলে বিজ্ঞান অনুষদের ডিন আমাকে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলে। পরবর্তীতে ব্যবস্থা সাপেক্ষে চিকিৎসাকেন্দ্রে ওই শিক্ষার্থী পরীক্ষা দেয়। পরীক্ষা চলাকালে রুমের বাহিরে একজন শিক্ষক উপস্থিত ছিল। এছাড়াও একজন নার্স পিপিই পরিধান করে ওই শিক্ষার্থীর পাশে ছিল।

শুক্রবার (১ অক্টোবর) সকাল ১১টায় ‘ক’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার মাধ্যমে শুরু হয় ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্র জানা যায়, ঢাবির বিভিন্ন কেন্দ্রে ৫৮ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী আর বিভাগীয় ৭টি কেন্দ্রে ৫৯ হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেন। ‘ক’ ইউনিটে আসন ১ হাজার ৮১৫টি। প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৬৫ জন ভর্তিচ্ছু ছিল। দেড় ঘণ্টায় এমসিকিউ ও লিখিত পরীক্ষা নেয়া হয়।

পরীক্ষা চলাকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো.আখতারুজ্জামান বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এসময় তিনি বলেন, প্রশ্নফাঁস নিয়ে গুজবে কান দেবেন না,পরীক্ষা সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। ডিজিটাল জালিয়াতি ও প্রশ্নফাঁস বন্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপাচার্য।

এছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের আহ্বান জানান উপাচার্য।

আগামীকাল শনিবার (২ অক্টোবর) ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এরপর ২২ ও ২৩ অক্টোবরও আছে ভর্তি পরীক্ষা। ঢাকার বাইরের কেন্দ্রগুলো বহাল রাখার আহ্বান জানায় শিক্ষার্থীরা।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply