অ্যাপে মডেলিং করে ২১ বছরের তরুণীর বার্ষিক আয় ১ কোটি

|

জেসিকা ক্যাসওয়েল। ছবি: সংগৃহীত।

সংসার চালাতে চার চারটি চাকরি পাল্টেছিলেন। কিন্তু তা সত্ত্বেও মাকে নিয়ে একা সংসার চালাতে পারছিলেন না জেসিকা ক্যাসওয়েল। কিন্তু সমস্যা সমাধান হলো খোলামেলা পোশাকে ছবি দেওয়া শুরু করতেই। এখন সেই ছবি, ভিডিও’র কারণে একটি অ্যাপ থেকে বছরে বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১ কোটি টাকা (১ লক্ষ ইউরো) উপার্জন করছেন জেসিকা।

জেসিকা দ্য মিররকে জানিয়েছেন, মাত্র ১৬ বছরে বয়সে তাকে স্কুল ছাড়তে হয়েছিল। পেট চালাতে তখন থেকেই উপার্জনের দিকে ঝুঁকতে হয় তাকে। প্রথমে একটি রেস্তোরাঁয় কাজ করতেন তিনি। তার পর কাজ করতেন অন্য একটি প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার পদে, এভাবে মোট চারটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেছেন তিনি। শেষে নিজেই অ্যাপে একটি অ্যাকাউন্ট খুলে ছবি দিতে শুরু করেন। শুরুটা ততটা ভাল না হলেও কয়েকদিনের মধ্যে উপার্জনের দরজা খুলে যায়।

একটা সময় বেশ টাকা আসতে শুরু করে। এরপর তিনি চাকরি ছেড়ে দেন। ধারণা করেন, যদি পুরো সময় এই কাজে ব্যয় করা যায়, তা হলে স্থায়ী উপার্জন এ কাজ থেকেই করা সম্ভব। আর এতে সংসারের অবস্থাও ভালো হবে।

তার পরেই স্থায়ী ভাবে অ্যাপের মডেল হয়ে ওঠেন তিনি। নিয়মিত হারে বাড়তে থাকে সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা। ২০২০ এর মাঝামাঝি সময় থেকে ২০২১ এর মাঝামাঝি পর্যন্ত তার ছবি ও ভিডিওর মাধ্যমে তিনি উপার্জন করে ফেলেছেন বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১ কোটি টাকা। আমেরিকার হিসাবে যা ১ লক্ষ ১৫ হাজার ডলারের বেশি। এই টাকায় একটি বাড়িও কিনে ফেলেন তিনি।

জেসিকা বলছেন, আমার পরিবারে এখন নিরাপত্তা আছে। আমি মা’কে নিরাপদে রাখতে পারছি। আর এখনই থামার কোনও প্রশ্ন নেই। আমি এখন নিজের ‘বস’। স্বাধীন ভাবে কাজ করি। কাজ করে যেতে চাই।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply