রাশিয়ার মতো নির্বাচন করা সম্ভব না, কবে সম্ভব তাও জানি না: সিইসি

|

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা। ফাইল ছবি।

বাংলাদেশে রাশিয়ার মতো নির্বাচন করা সম্ভব না এবং কবে নাগাদ তাদের মতো নির্বাচন করা সম্ভব হবে তাও জানেন না বরে মন্তব্য করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা।

বুধবার (২৯ সেপ্টেম্বর) নির্বাচন ভবনে ৮৬তম কমিশন বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ মন্তব্য করেন। গত ১৬ সেপ্টেম্বর রাশিয়ার নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করতে দেশটিতে সফরে যান সিইসি। ওই সফরে তিনি রাশিয়ার জাতীয় সংসদের নিম্নকক্ষ স্টেট দুমা’র সাধারণ নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করেন।

রাশিয়ার মতো নির্বাচন কেন সম্ভব না প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সেখানে তিনদিন ধরে ভোট গ্রহণ চলে। তিনদিন ব্যালট রাখার মতো অবকাঠামো আমাদের নেই। আমাদের এমন সক্ষমতাও নেই। ভোটাররাও এসব নিয়ে চিন্তাভাবনা করে না।

কে এম নুরুল হুদা বলেন, রাশিয়ার নির্বাচনে প্রার্থীদেরকে ঘরে ঘরে গিয়ে প্রচার করতে হয় না। সেখানে নির্বাচন হয় ১১টা টাইম জোনে। প্রত্যেকটি ভোটকেন্দ্র সিসিটিভির আওতাধীন এবং প্রার্থীরা ঘরে বসেই ভোটকেন্দ্রের পরিস্থিতি দেখতে পারেন।

তিনি আরও বলেন, ৪৯ দেশের মোট ২৪৫ জন নির্বাচন পর্যবেক্ষণ করতে যায়। সেখানে আমি তাদের সাথে বাংলাদেশের ব্যবস্থা সম্পর্কে তথ্য জানাই। তাদের ভোটকেন্দ্র নিয়ে গণ্ডগোল, অভিযোগ ছিল না। এছাড়াও নেই ব্যালট বাক্স ছিনতাইয়ের সুযোগ। ভোট ইভিএম মেশিনে না হলেও অন্য প্রযুক্তিতে ভোট হয়। পাসপোর্ট দেখে ভোটারকে শনাক্ত করা হয় এবং ভোট দিলে সঙ্গে সঙ্গে মনিটরে দেখতে পাওয়া যায়।

নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে সিইসি বলেন, সব রাজনৈতিক দলের ঐক্যমত্যের ভিত্তিতে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করা উচিত।

তিনি বলেন, নতুন কমিশন গঠনের বিষয়ে ইসি’র কোনো মতামত থাকে না। তবে পরামর্শ চাওয়া হলে কমিশন মতামত জানাতে পারে বলেও জানান তিনি।

এছাড়াও নুরুল হুদা বলেন, ইসি মোটেই অনাস্থার জায়গা নয়। আস্থা আছে বলেই নির্বাচনে ৬০-৮০ শতাংশ ভোট পড়ে।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply