চাপের মুখে কাবুলে বন্ধ হচ্ছে নারীদের ড্রাইভিং প্রশিক্ষণকেন্দ্র

|

ছবি: সংগৃহীত।

আফগানিস্তানের নারী উদ্যোক্তা নীলাভ গত এক বছর আগে কাবুলে নারীদের জন্য একটি ড্রাইভিং প্রশিক্ষণকেন্দ্র শুরু করেছিলেন। তবে অনিশ্চিত ভবিষ্যতের মুখে এবার সেই ট্রেইনিং সেন্টার বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

আফগানিস্তানের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম টোলো নিউজকে নীলাভ জানিয়েছেন, ড্রাইভিংয়ের প্রতি আফগান নারীদের বেশ আগ্রহ আছে। সর্বশেষ ৩০ জনেরও বেশি নারী ড্রাইভিং শিখতে আগ্রহী ছিলেন। তবে গত মাস থেকে কেউই আর প্রশিক্ষণকেন্দ্রে আসছেন না। এই অনিশ্চিত ভবিষ্যতের মুখেই প্রশিক্ষণকেন্দ্রটি বন্ধের সিদ্ধান্ত নিচ্ছি আমি।

নীলাভের এই ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে ড্রাইভিং শিখেছেন কাবুলের অধিবাসী মুগ্ধা। তিনি জানান, নারীদের নিজেদের কাজ ও দক্ষতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের সাথে সংযুক্ত থাকা দরকার। আমি ড্রাইভিং শিখেছি নিজের পায়ে দাঁড়ানোর জন্য। যাতে অন্য কারোর ওপর আমাকে নির্ভর করতে না হয়, এ জন্য আমি ড্রাইভিং শিখেছি।

আরও একজন নারী এ নিয়ে বলেন, এখন কোনও নারীই অভাবের মধ্যে থাকতে চাইবে না। নিজের চাহিদা নিজেই মেটানোর জন্য চিকিৎসক বা কোনও প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করে হালাল উপায়ে নিজেদের খাদ্য নিজেরা সংগ্রহ করতে চায় নারীরা।

এদিকে, তালেবানের সাংস্কৃতিক কমিশনের সদস্য সৈয়দ খোস্তি বলেছেন, ইসলামিক শরিয়ত মেনে নারীরা যে কোনও স্থানে যেতে পারবে, যেকোনও কর্মকাণ্ড করতে পারবে। তবে এখন পর্যন্ত নারী শিক্ষার্থীদের স্কুলে যাওয়ার ব্যাপারে কোনও সিদ্ধান্তই নেয়নি তালেবান।

/এসজেড


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply