চার্জিং পোর্টই রাখছে না অ্যাপল

|

সম্প্রতি ইলেক্ট্রনিক বর্জ্য কমানোর উদ্যোগ হিসেবে ইউরোপীয় কমিশনের প্রস্তাবিত এক নীতিতে সবধরনের ডিভাইসের জন্য ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট ব্যবহার করতে সুপারিশ করা হয়েছে। প্রস্তাবটি বাস্তবায়িত হলে ডিভাইস প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠানগুলোকে ২৪ মাস পর থেকে বাধ্যতামূলকভাবে ইউএসবি টাইপ-সি পোর্ট ব্যবহার করতে হবে।

ইউরোপীয় কমিশনের এই নতুন নীতিমালায় অ্যান্ড্রয়েডকে খুব একটা প্রভাবি করবে না। কেননা, অধিকাংশ নতুন অ্যান্ড্রয়েডই এখন ঝুকছে টাইপ-সি পোর্টের দিকে। তবে সমস্যায় পড়বে অ্যাপল। এই প্রতিষ্ঠানটি তাদের ডিভাইসগুলোতে এখনও লাইটনিং পোর্ট ব্যবহার করছে। এর আগে ইউরোপীয় কমিশনের প্রস্তাবে অ্যাপল প্রথম থেকেই দ্বিমত করে আসছিলো। তারা বলেছে, এই সিদ্ধান্ত উদ্ভাবনী প্রযুক্তির জন্য একটি বাধা। তবে যদি নিতান্তই এই নীতিমালা কার্যকর হয়, তাহলে অ্যাপলকে হয়তো টাইপ-সি পোর্ট ব্যবহার করতে হবে, অথবা পোর্টই ব্যবহার করা যাবে না।

অ্যাপল ভাবছে দ্বিতীয়টির কথা। কেননা, ডিভাইসে চার্জিং পোর্ট থাকতেই হবে, এমন কথা নেই। এ বষয়ে ইউরোপীয় কমিশনের এক মুখপাত্র জানিেয়ছেন, কোনো ডিভাইস ওয়ারলেসে চার্জ হলে তাতে ইউএসবি-সি পোর্ট ব্যবহারের প্রয়োজন নেই।

আর এ কারণেই অ্যাপল চার্জিং পোর্ট তুলে দিতে পারে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। কেননা, ওয়্যারলেস চার্জার দিন দিন জনপ্রিয় হচ্ছে। অ্যাপল ইতোমধ্যে ম্যাগসেফ নামের একটি ওয়ারলেস চার্জিং টেকনোলজি নিয়ে এসেছে। তাছাড়া সামনে আরও দুই বছর সময়ও পাবে তারা। তাই নতুন ও আরও আধুনিক ওয়ারলেস প্রযুক্তি উদ্ভাবন করতেও তাদের বেগ পেতে হবে না।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply