মার্টিনেজের মনস্তাত্ত্বিক লড়াইয়ে হারলো রোনালদো ও ম্যান ইউ

|

রোনালদোকে পেনাল্টি নেয়ার আহ্বান জানাচ্ছেন এমি মার্টিনেজ। ছবি: সংগৃহীত

অ্যাস্টন ভিলার আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্টিনেজ শুধুই রিফ্লেক্স দিয়েই নয়, মনস্তাত্ত্বিক লড়াইয়েও হারিয়ে দেন পেনাল্টি নিতে আসা খেলোয়াড়দের। কোপা আমেরিকার সেমিফাইনালের পর এমন দৃশ্য আবারও দেখলো ফুটবল বিশ্ব। এবার এমি মার্টিনেজের কাছে রোনালদো হেরেছেন কি হারেন নি, সেটা নিয়ে বিতর্ক চলতেই পারে। তবে নিঃসন্দেহে রেড ডেভিলদের পেনাল্টি বিশেষজ্ঞ ব্রুনো ফার্নান্দেজ হেরেছেন পুরো দলশুদ্ধ।

ম্যাড়মেড়ে ড্রয়ের দিকেই যাচ্ছিল ম্যান ইউ- অ্যাস্টন ভিলার ম্যাচটি। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের অন্তিম সময়ে কোর্টনি হাউসের গোলে পরাজয়ের শঙ্কা ঘিরে ধরে রোনালদোদের। খেলা শেষ হওয়ায় ঠিক আগ মুহূর্তে ৯২ মিনিটে ব্রুনো ফার্নান্দেজের ডানপ্রান্ত থেকে বাড়ানো ক্রস গিয়ে স্পর্শ করে গোলদাতা হাউসের হাত। বেজে ওঠে রেফারির বাঁশি, ম্যান ইউ পায় কাঙ্ক্ষিত পেনাল্টি।

আর তখনই শুরু হয় এমিলিয়ানো মার্টিনেজের মনস্তাত্ত্বিক লড়াই। জটলার মধ্যে দাঁড়ানো ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে তাতিয়ে দেয়ার উদ্দেশ্যেই হয়তো বারবার ডুয়েল লড়ার ঢঙে বলতে লাগলে, পেনাল্টিটা তুমি নাও, পেনাল্টিটা তুমি নাও!

দলে আছেন সিআরসেভেন। পেনাল্টি নেয়ার সময় ইস্পাতদৃঢ় মনোবল বজায় রেখে অব্যর্থভাবে পেনাল্টি নিয়ে থাকেন তিনি। কিন্তু ৯৩ মিনিটে পাওয়া পেনাল্টিটা আর তিনি নিলেন না। লড়াইয়ের আহ্বানেও সাড়া মেলেনি তার কাছ থেকে। তার জায়গায় পেনাল্টি নিতে আসেন রেড ডেভিলদের পেনাল্টি বিশেষজ্ঞ ব্রুনো ফার্নান্দেজ। কিন্তু ব্রুনো সেটাই করলেন যা তিনি কদাচিৎ করে থাকেন। বল উড়িয়ে দিলেন ক্রসবারের উপর দিয়ে! স্তব্ধ হয়ে গেল ওল্ড ট্রাফোর্ড, স্তব্ধ হয়ে গেলেন ব্রুনো।

ম্যাচ জয়ের পথে পেনাল্টি সেভ করার মতো কিছু করেননি এমি মার্টিনেজ। মূলত ব্রুনোর মিসের কারণেই জয় পেয়েছে অ্যাস্টন ভিলা। কিন্তু ব্রুনোর পেনাল্টি মিসের কারণ কি আর কখনো স্পষ্ট হবে? রোনালদোর সাথে করা মার্টিনেজের মনস্তাত্ত্বিক লড়াইয়ের পরোক্ষ প্রভাবে জালের বদলে গ্যালারিতে বল পাঠিয়েছেন ব্রুনো, এমনটা বললে হয়তো খুব একটা ভুল হবে না। শত হলেও, উত্তেজনা তো সংক্রামক!

/এম ই


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply