ব্যাঙ্গালুরু থেকেও কেড়ে নেয়া হতে পারে কোহলির অধিনায়কত্ব

|

আমিরাত পর্বে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর ব্যর্থতার দায়ে ভিরাট কোহলির অধিনায়কত্ব কেড়ে নেয়া হতে পারে বলে মনে করছেন ভারতের সাবেক ওপেনার গৌতম গাম্ভির। ২০১৩ সাল থেকে অধিনায়ক হিসেবে ব্যাঙ্গালুরুকে সামলাচ্ছেন তিনি। তবে একবারের জন্যও আইপিএল শিরোপা জিততে পারেননি। এখন দলটির মালিকপক্ষ ইউনাইটেড স্পিরিটস লিমিটেডের ওপর নির্ভর করছে ভিরাটের অধিনায়কত্বে টিকে থাকা।

সোমবার ওপেনার হিসেবে মাঠে নেমেছিলেন ভিরাট কোহলি। চমৎকার একটা এক্সট্রা কাভার ড্রাইভ দিয়ে শুরুও পেয়েছিলেন। আউট হওয়া বলটি ছিল সবে চতুর্থ। প্রশিধ কৃষ্ণার স্ট্যাম্প সোজা সেই বলটিকে স্কয়ার লেগে ফ্লিক করতে চেয়েছিলেন ভিরাট। না, কোনো ইনসাইড এজও ছিল না ব্যাটে; সাদামাটা বলটি তাকে এলবিডাব্লিউ করে দেয়। তৃতীয় আম্পায়ারের দ্বারস্থ হয়েও বাঁচতে পারেননি ডাকসাইটে ভিরাট।

৯২ রানে অলআউট হয়ে তার দল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু ম্যাচ হারে ৯ উইকেটে। ঐ হারটাই আবার তার অধিনায়কত্ব কেড়ে নিতে পারে এমন শঙ্কাও জেগেছে। তাও আবার এই আইপিএলেই। ২০১৩ সাল থেকে সামলাচ্ছেন আরসিবির অধিনায়কের দায়িত্ব, কিন্তু কখনও দলকে শিরোপা এনে দিতে পারেননি ভারতের তিন ফরমেটের অধিনায়ক। বিশ্বকাপের পর ছাড়বেন টি-টোয়েন্টির অধিনায়কত্ব, তবে তার আগেই হাত ফস্কে বেরিয়ে যেতে পারে আরসিবির অধিনায়কত্বের আর্মব্যান্ড। গৌতম গাম্ভির অন্তত তাই মনে করছেন।

গাম্ভির বলছেন, কোলকাতার বিপক্ষে ভিরাট এবং তার দল ছিল একেবারে হতশ্রী। এর অর্থ ও দলকে অনুপ্রাণিত করতে পারছে না। মনে হচ্ছে এই মৌসুমের মাঝেই হয়ত ওকে ওর পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হবে। এটা এর আগেও হয়েছে আইপিএলে। দিনেশ কার্তিককে কোলকাতা, আর ডেভিড ওয়ার্নারকে হায়দরাবাদের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিক বনে যাওয়া লোকসভা সদস্য গাম্ভির মনে করেন, এবি ডি-ভিলিয়ার্সকে দায়িত্ব দেয়া উচিত আরসিবি কর্তৃপক্ষের। তবে মালিকপক্ষ ভারতীয় অ্যালকোহলিক বেভারেজ প্রতিষ্ঠান ইউনাইটেড স্পিরিটস লিমিটেড সেই কঠিন কাজটি নাও করতে পারে। কারণ, ভিরাট কোহলির চেয়ে বড় ব্রান্ড তো আর বিশ্ব ক্রিকেটেই নেই!





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply