গৃহযুদ্ধের পথে আফগানিস্তান! যা বললেন ইমরান

|

ছবি: সংগৃহীত

সব দলকে নিয়ে সরকার গঠন করতে না পারলে খুব শীঘ্রই আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধ সৃষ্টি হতে পারে। এমন আশঙ্কা করছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসিকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এ মন্তব্য করেন তিনি।

ইমরান সতর্ক করে বলেন, ঐকমত্যের সরকার গঠন করতে না পারলে আফগানিস্তানে গৃহযুদ্ধ শুরু হতে পারে। আর সেখানে গৃহযুদ্ধ শুরু হলে অঞ্চলটিতে ভয়াবহ আকারে মানবিক ও শরণার্থী সংকট দেখা দেবে। পাক প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, সংঘাতময় পরিস্থিতির সুযোগ নেবে বিভিন্ন সন্ত্রাসী গোষ্ঠী। উগ্রবাদ ছড়িয়ে দেয়ার জন্য আফগানিস্তানের মাটি ব্যবহার করবে তারা। ফলে কাবুলে অস্থিতিশীল ও বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হতে পারে। আফগানিস্তানে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে তার প্রভাব পাকিস্তানের ওপরে পড়বে বলেও এসময় মন্তব্য করেন তিনি।

এরইমধ্যে নিজেদের অধিকার আদায়ের দাবিতে বেশ কয়েক দিন ধরেই বিক্ষোভ করে আসছেন নারীরা। এ প্রসঙ্গে ইমরান বলেন, নারীদের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নেয়া উচিত হবে না তালেবান সরকারের। কারণ ইসলাম এটি বলে না। তারা এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিলে তা হবে অনৈসলামিক।

উল্লেখ্য, নারীদের শিগগিরই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যাওয়ার অনুমতি দেয়া হবে, এমন ইঙ্গিত এসেছে খোদ তালেবান সরকারের কাছ থেকেই। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) তালেবান মন্ত্রিসভার বাকি সদস্যদের নাম ঘোষণাকালে তালেবানের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ জানান, আমরা সবকিছু চূড়ান্ত করছি…এটি যত দ্রুত সম্ভব ঘটবে।

আফগানিস্তান ও পাকিস্তান পাশাপাশি দেশ হওয়ায় এক দেশের যে কোন পরিস্থিতি অন্য দেশে প্রভাব ফেলবে। তাই ইমরান খানের এসব বিষয়ে খুব কৌশলী হয়ে পদক্ষেপ নিতে হয়।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply