উত্তেজনা নিরসনে বাইডেন-ম্যাকরন ফোনালাপ

|

ছবি: সংগৃহীত

অস্ট্রেলিয়ার সাথে সাবমেরিন চুক্তি নিয়ে তৈরি হওয়া উত্তেজনা নিরসনে অবশেষে উদ্যোগ নিয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। ফোনালাপ হয়েছে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ফরাসি প্রেসিডেন্ট ম্যাকরনের মধ্যে।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) তাদের মধ্যে এ ফোনালাপ হয়। এক সংবাদ সম্মেলনে হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, জো বাইডেন ও ইমানুয়েল ম্যাকরনের মধ্যে ৩০ মিনিট ধরে আলোচনা চলে। দুই নেতার আলাপ বন্ধুত্বপূর্ণ ছিলো। ফ্রান্সের সাথে দীর্ঘদিনের বন্ধুত্ব আর গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক স্বাভাবিক হবে বলে আশাবাদী প্রেসিডেন্ট। আগামী সপ্তাহেই ওয়াশিংটনে ফিরবেন ফরাসি রাষ্ট্রদূত।

পরে ওয়াশিংটন-প্যারিসের এক যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, দু’দেশের সম্পর্কে আস্থা ফিরিয়ে আনতে বিস্তারিত আলোচনায় সম্মত হয়েছেন বাইডেন-ম্যাকরন। আগামী মাসের শেষে ইউরোপে বৈঠকে বসবেন তারা।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্র-যুক্তরাজ্য ও অস্ট্রেলিয়ার মধ্যে নিরাপত্তা সংক্রান্ত ‘অকাস চুক্তি’তে স্বাক্ষরে চরম ক্ষুব্ধ হয় ফ্রান্স। এর জেরে যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়া থেকে রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করে নেয় ফ্রান্স। একই সাথে ওয়াশিংটন এবং বাল্টিমোরের আসন্ন আমেরিকা-ফ্রান্স মৈত্রী কর্মসূচিতেও অংশগ্রহণ না করার কথা জানিয়েছেন ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জঁ-ইভেস লে ড্রিয়ান।

এর আগে, সাবমেরিন চুক্তি থেকে অস্ট্রেলিয়ার নাটকীয়ভাবে বেরিয়ে যাওয়াকে বিশ্বাসঘাতকতা বলে আখ্যা দিয়েছিল ফ্রান্স। বলা হয়েছিল, আমাদের পেছন থেকে ছুরি মারা হয়েছে। মিত্র দেশের মতো আচরণ নয় এটি।

পাশাপাশি বাইডেনের এ সিদ্ধান্তকে ট্রাম্পের সাথেও তুলনা করেন ফ্রান্সের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জঁ-ইভেস লে ড্রিয়ান। বলেন, সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মতো আচরণ করছেন বাইডেন। ট্রাম্পই এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিতেন।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply