বিরল রোগে আক্রান্ত তাহিয়াকে বাঁচাতে এগিয়ে আসুন

|

পাঁচ মাস বয়সী কন্যা শিশু তাহিয়া আমিন।

বরগুনার তালতলীর উপজেলার তাহিয়া আমিন নামে পাঁচ মাস বয়সী এক কন্যা শিশু জন্মগতভাবে বিরল বিলিয়ারি অ্যাট্রেসিয়া রোগে আক্রান্ত। তার চিকিৎসাবাবদ প্রায় ৫০-৬০ লাখ টাকার প্রয়োজন।

তাহিয়া উপজেলার জাকির তবক গ্রামের বাসিন্দা প্রাইমারি স্কুল শিক্ষক আল আমিন ও মৌসুমি খানমের মেয়ে। তার বাবা-মা মেয়ের চিকিৎসার জন্য ঢাকার নানা হাসপাতালে ছুটে বেড়ান। কিন্তু তার রোগ শনাক্ত করা যাচ্ছিল না। অবশেষে চিকিৎসকরা জানান, ভারতের চেন্নাইয়ের রেলা ইনস্টিটিউটে নিয়ে লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করতে হবে। যেখানে চিকিৎসাবাবদ প্রায় ৫০-৬০ লাখ টাকার মতো খরচ হবে।

চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী তাহিয়ার পরিবার ভারতে যেতে চায়। কিন্তু পরিবারের আর্থিক সীমাবদ্ধতা ও এরইমধ্যে দেশে বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয় করার কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না। তাই তাহিয়ার জীবন বাঁচাতে সহৃদয়বান ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের সহযোগিতা চেয়েছেন স্কুল শিক্ষক বাবা।

তাহিয়ার মা মৌসুমি খানম জানান, ভারতে কথা বলে জেনেছি যত দ্রুত সম্ভব ওর লিভার ট্রান্সপ্লান্ট করতে হবে, তা না হলে ওর ইমিউনিটি শক্তি কমে যাবে এবং ওর বেঁচে থাকাটা অনেক কঠিন হয়ে যাবে।

তিনি আরও বলেন, চিকিৎসার জন্য প্রায় ৫০-৬০ লক্ষ টাকা প্রয়োজন। আমাদের ১০-১৫ লক্ষ টাকা যোগাড় করার সামর্থ্য আছে। বাকিটা যদি ১ লক্ষ মানুষ ৫০ টাকা করে সাহায্য করে তাহলে তাহিয়ার চিকিৎসা করা সম্ভব।

তাহিয়ার জীবন বাঁচাতে সাহায্য পাঠাতে পারেন নিম্নোক্ত ঠিকানায়:

আল আমিন (পিতা)
বিকাশ/রকেট/নগদ – 01719659253
মৌসুমী খানম (মা)
বিকাশ/রকেট – 01309190026

ডাচ বাংলা ব্যাংক একাউন্ট
2181030021225
মৌসুমি খানম (মা)
পটুয়াখালী ব্যাঞ্চ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply