শেষ হচ্ছে ৬০ বছর ধরে বিচ্ছিন্ন গ্রামগুলোর দুর্ভোগ

|

কাপ্তাইয়ে কৃত্রিম হ্রদ তৈরির কারণে রাঙ্গামাটি মূল শহর থেকে ৬০ বছর ধরে বিচ্ছিন্ন তিন পাড়ার ১০ হাজার মানুষ। তবে লাঘব হচ্ছে তাদের দুর্ভোগ। ১৭ কোটি টাকায় নবনির্মিত ‘ওয়াই’ আকৃতির একটি সেতু তাদেরকে সংযুক্ত করছে মূল ভূখণ্ডের সাথে।

রাঙামাটির সবচেয়ে পুরানো বাসিন্দা বলা হয়ে থাকে ঝুলুক্ক্যা, জালিয়া এবং পুরান নামে এই তিন পাড়ার বাসিন্দাদের। যারা ৭২৫ বর্গকিলোমিটার আয়তনের এই কৃত্রিম কাপ্তাই হ্রদে হারিয়েছিলেন নিজেদের বসত ভিটা।

পাড়া দুটি বর্তমান রাঙামাটি শহরের খুব কাছাকাছি হলেও এতোদিন সড়ক যোগাযোগ না থাকায় একরকম বিচ্ছিন্ন ছিলেন এখানকার বাসিন্দারা। দীর্ঘ ৬০ বছর পর, এবার সেই দুর্দশা কাটছে তাদের। ওয়াই আকৃতির নবনির্মিত একটি সেতু মূল শহরের সাথে যুক্ত করছে এই পাড়া দুটিকে।

২০১৩ সালে রাঙামাটিতে সেতুটির ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান আশীষ কুমার বড়ুয়া জানালেন, নানা প্রতিকূলতার পর এটির কাজ এখন শেষ পর্যায়ে। খুব শীঘ্রই এটি খুলে দেয়ার কথা রয়েছে বলেও জানালেন তিনি।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের অর্থায়নে ৩৮৪ মিটার দীর্ঘ এই সেতু নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে ১৭ কোটি ৬৩ লাখ টাকা।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply