মাস্ক পরে রেস্টুরেন্টে যাওয়ায় বের করে দিলো মালিক

|

ছবি: সংগৃহীত।

বৈশ্বিক মহামারি করোনায় সমগ্র বিশ্ব যেখানে মাস্কের প্রতি গুরুত্ব দিচ্ছে সেখানে ঠিক তার উলটো ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের একটি রেস্টুরেন্টে। মাস্ক পরে যাওয়ায় রেস্টুরেন্ট থেকে বের করে দেয়া হয় একটি পরিবারকে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত সপ্তাহে। এক ছুটির দিনে নাটাইল ওয়েস্টার নামের এক নারী স্বপরিবারে বন্ধুদেরকে নিয়ে রলেটের একটি রেস্টুরেন্টে যান সন্ধ্যাকালীন খাবার খেতে। সাথে তাদের ৪ মাসের ছোটো বাচ্চা ছিলো।

তিনি বলেন, আমাদের করোনা ভ্যাকসিনের দুইটি ডোজই দেয়া আছে। তারপরও বাচ্চার নিরাপত্তার কথা ভেবে আমরা মাস্ক পরেছিলাম। কিন্তু রেস্টুরেন্টে ঢোকার সাথে সাথেই আমাদেরকে বলা হয় মাস্ক খুলে ফেলার জন্য। আমরা কথা না শোনাই তাদের একজন পরিচারক এসে ঠিক আমার সামনে বসেই আমাদেরকে মাস্ক খুলে ফেলার জন্য বলে। সে বলে, আমাদের এখানে মাস্ক পরিহিত কোনো ক্রেতাকে ঢুকতে দিই না।

পরিচারক আরও বলেন, আমাদের রেস্টুরেন্টের ড্রেস কোডে মাস্ক নেই। বিধায় আপনাদেরকে মাস্ক খুলে ফেলতে হবে।

কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে রেস্টুরেন্টের মালিক আসেন। তিনি বলেন, আমি রেস্টুরেন্টটি আমার নিজের টাকায় করেছি। এখানে আমার সিদ্ধান্তই চুড়ান্ত। আমার এই রেস্টুরেন্টে কোনো মাস্ক পরিহিত কাউকেই আমি থাকতে দিব না। আমি মনে করি, যুক্তরাষ্ট্রে এখন মাস্ক পরা একটি হাস্যকর ব্যপার ছাড়া কিছুই না।

রেস্টুরেন্টের মালিক আরও বলেন, আমরা তাদেরকে আবার দরজার কাছে ফেরত পাঁঠায় যেনো তারা মাস্ক খুলে প্রবেশ করে। কিন্তু তারা মাস্ক খুলতে অস্বীকৃতি জানায়। আর এর ফলে, আমি তাদেরকে বের করে দিই।


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply