হিন্দু প্রেমিকাকে দিয়ে জোরপূর্বক জুতাপেটা মুসলিম প্রেমিককে, রুখে দাঁড়ালেন প্রেমিকাই

|

ছবি: সংগৃহীত

প্রেমিকার ধর্মীয় পরিচয় হিন্দু, প্রেমিক মুসলিম। এতেই চটে যায় ভারতের কট্টর হিন্দুত্ববাদী সংগঠন হিন্দু জাগরণ মঞ্চের সদস্যরা। সকলের সামনে প্রেমিকাকে দিয়ে জোর করে জুতো পেটা করা হয় ওই মুসলিম প্রেমিককে। এখানেই শেষ নয়। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দাজার পত্রিকার তথ্য বলছে, ওই প্রেমিককে কান ধরিয়ে উঠবসও করানো হয় রাস্তার ধারে। ঘটনা ভারতের উত্তরপ্রদেশের। এ নিয়ে পুলিশে অভিযোগ করেছেন ওই তরুণী।

পুলিশের কাছে ওই তরুণী অভিযোগ করেন, একটি বাজারের কাছে গাছের নিচে বসেছিলেন তারা। প্রথমে তাদের বসে থাকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন কাছের এক দোকানদার। এরপর ঘটনাস্থলে আসে হিন্দু জাগরণ মঞ্চের সদস্যরা। প্রথমে এসেই তাদের নাম জিজ্ঞাসা করে তারা। নাম বলার পরই স্পষ্ট হয় ধর্ম পরিচয়। তখনই শুরু হয় অত্যাচার।

ওই তরুণী বলেন, প্রথমে মারধর করে তারা। তার পর তরুণীকে বলা হয় তার সঙ্গীর গালে জুতো দিয়ে মারতে। প্রথমে তিনি আলতো করে এক বার মারেন। কিন্তু তাতে শান্তি হয়নি ওই দলের। বারবার জোরে মারতে বলা হয়। একাধিকবার তরুণীকে জুতো মারতে বাধ্য করে ওই সংগঠনের সদস্যরা। এখানেই শেষ নয়, তারপরেও কান ধরে বসিয়ে রাখা হয় ওই যুবককে। শেষে মারতে মারতে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় থানায়।

হিন্দু জাগরণ মঞ্চের সদস্যরা থানায় নিয়ে ওই মুসলিম তরুণের বিরুদ্ধে তরুণীকে অভিযোগ করার জন্য জোর করে। তবে কিন্তু তরুণী অভিযোগ করতে অস্বীকার করেন। তিনি বলেন, ওই পুরুষের সঙ্গে তিনি নিজের ইচ্ছাতেই বসেছিলেন, এখানে কোনও রকম জোর করা হয়নি।

ওই তরুণী অভিযোগ না করায় যুবককে গ্রেফতার করেনি পুলিশ। শেষে অন্য এক জনকে দিয়ে একটি অভিযোগ দায়ের করানো হয় মঞ্চের তরফ থেকে। কিন্তু পুলিশ বুঝতে পারে, আসলে জোর করে সেই অভিযোগ দায়ের করানো হয়েছে। পাল্টা হিন্দু জাগরণ মঞ্চের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন ওই তরুণী। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে হিন্দু জাগরণ মঞ্চের কয়েক জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply