পদ্মা-করতোয়ার ভাঙনে হুমকিতে মহাসড়ক, হারাচ্ছে স্থাপনা

|

পদ্মা ও করতোয়া নদীর ভাঙনের মুখে পড়েছে কুষ্টিয়া ও পঞ্চগড়ের মানুষ। প্রতিদিনই বিলীন হচ্ছে বসতঘর ও জমি। হুমকিতে রয়েছে সড়কসহ নানা স্থাপনা। স্থায়ী বাঁধের দাবিতে আন্দোলনে নেমেছেন এলাকাবাসী।

প্রায় প্রতিবছরই পদ্মার ভাঙন দেখা দেয় কুষ্টিয়ার মিরপুরের তালবাড়িয়া পয়েন্টে। তবে এবারের ভয়াবহতা সবচেয়ে বেশি। গত ২০ বছরে তালবাড়িয়া-বহালছড়ি ইউনিয়নের ৬ গ্রামের প্রায় ৭ হাজার বসতভিটা নদীতে বিলীন হয়েছে। নতুন করে ভাঙন দেখা দেয়ায় প্রতিদিনই হারাচ্ছে নানা স্থাপনা। ঝুঁকিতে পড়েছে পাবনা-কুষ্টিয়া মহাসড়ক।

ভাঙন রোধের কার্যকর ব্যবস্থার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছে এলাকাবাসী। সম্মেলনে ভাঙন রোধে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

কুষ্টিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আফসার উদ্দিন জানান, বাঁধ নির্মাণ প্রকল্পটি একনেকে অনুমোদনের অপেক্ষায় আছে। এরপরই শুরু হবে কাজ।

এদিকে পঞ্চগড়ে ভাঙছে করতোয়া নদীও। বেশি খারাপ অবস্থা দেবীগঞ্জে। উপজেলার সোনাহার, সুন্দরদিঘীসহ কয়েকটি ইউনিয়নের অনেক পরিবার এরইমধ্যে নিঃস্ব। ঝুঁকিতে আরও নানা স্থাপনা।

ভাঙন রোধে কারিগরি কমিটির কথা জানালেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। ভাঙন রোধে নদীর পাড়ে বালুর বস্তা ফেলার কথাও উল্লেখ করেন তিনি।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply