অনলাইনেই ক্লাস, অনলাইনেই প্রিন্ট পত্রিকা

|

আবু বকর রায়হান

করোনার কারণে এক বছরের অধিক সময় বন্ধ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়। অনলাইনেই চলছে শিক্ষা কার্যক্রম। সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়টির গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে প্রিন্ট পত্রিকা বের করা হয়েছে। করোনার মধ্যে যেখানে নিয়মানুযায়ী ক্লাস নিতে কষ্ট হয়, সেই অবস্থায় প্রিন্ট পত্রিকা বের করে অনন্য নজির স্থাপন করেছে বিভাগটি।

পত্রিকাটির নাম রাখা হয়েছে ‘দ্বি এমসিজে’।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে অনলাইন ক্লাস শুরু হয়। অনলাইন ক্লাসে বিভাগটির দ্বিতীয় ব্যাচের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থীরা এডিটিং এন্ড পেজ মেকআপ কোর্সে একটি প্রিন্ট পত্রিকা বের করার সিদ্ধান্ত নেয়। এর ভিত্তিতে অনলাইনেই শুরু হয় পত্রিকা তৈরির কাজ।

গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ও কোর্সটির কোর্স শিক্ষক কাজী এম. আনিছুল ইসলাম এবং অতিথি শিক্ষক সুপ্রিয় সিকদারের দিকনির্দেশনায় পত্রিকাটির কাজ শুরু হয়। বিভাগের শিক্ষার্থী নাজিমুল হক সানির প্রকাশনায় পত্রিকাটিতে সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন মহিউদ্দিন মাহি আর সহ-সম্পাক হিসেবে রয়েছেন জান্নাতুল ফেরদৌসী রাখি। সার্বিক তত্ত্বাবধানে আছেন রিদওয়ান ইসলাম।

করোনা পরিস্থিতির কারণে চারপাশে যখন হতাশার খবর ছড়িয়ে পড়েছে তখন ‘দ্বি এমসিজে’ পত্রিকার জন্য শিক্ষার্থীরা মানবিক আবেদন সমৃদ্ধ সকল প্রতিবেদন খুঁজে বের করে আনেন। যেসকল প্রতিবেদন পড়ে পাঠক উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা পাবেন। ৪ পাতার এই পত্রিকায় সংবাদের পাশাপাশি ছোটগল্প, ভ্রমণ কাহিনী, মতামত কলাম, সম্পাদকীয়, ফিচার, সাক্ষাতকার রাখা হয়েছে।

দ্বি এমসিজের প্রকাশক নাজিমুল হক সানি বলেন,’আমাদের শিক্ষকরা শুধু স্বপ্ন দেখান না, হাতে কলমে সেই স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে শেখান। শিক্ষকদের অনুপ্রেরণার কারণেই এই বিভাগ থেকে পত্রিকাটি প্রকাশ করতে পেরেছি। ভবিষ্যতে সাংবাদিকতা বিভাগ থেকে আরো চমক আসবে।’

পত্রিকাটির সম্পাদক মহিউদ্দিন মাহি বলেন, ‘গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগ ভিন্নধর্মী কাজের মাধ্যমে দিনদিন এগিয়ে যাচ্ছে। তারই সর্বশেষ সংস্করণ ‘দ্বি এমসিজে’ পত্রিকা। করোনায় ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় সবাই নিজ বাড়িতে অবস্থান করেও আমরা কাজটি শেষ করতে পেরেছি। এটি নিঃসন্দেহে বড় পাওয়া।’

No description available.

পত্রিকাটির সাথে যুক্ত বিভাগের কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, করোনার কারণে যেখানে অনলাইন ক্লাস নেয়া কষ্ট হয়ে দাঁড়াচ্ছে, সেখানে প্রিন্ট পত্রিকা তৈরি সহজ নয়। আমাদের শিক্ষকদের দিকনির্দেশনায় আমরা সাহস করেছি। এর ফলে পত্রিকার কাজ শেষ করতে পেরেছি। ব্যবহারিক ক্লাসে বাস্তব প্রিন্ট পত্রিকায় কাজ করার অভিজ্ঞতা অর্জন করা হয়েছে।

এছাড়াও, এই বিভাগের শিক্ষার্থীদের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে ২৪ ঘণ্টার অনলাইন নিউজ পোর্টাল এমসিজে নিউজ, এমসিজে পডকাস্ট। আর সম্প্রচার সাংবাদিকতার চর্চায় রয়েছে এমসিজে টিভি। পত্রিকাটি বের করার মাধ্যমে এই তালিকায় নতুন করে সংযোজন হলো দ্বি এমসিজে পত্রিকা। যেগুলোর মাধ্যমে শিক্ষার্থীরা সাংবাদিকতার ব্যবহারিক বিষয়ে দক্ষতা অর্জন করতে পারেন।

বিভাগটির সহকারী অধ্যাপক ও কোর্সটির কোর্স শিক্ষক কাজী এম. আনিছুল ইসলাম বলেন,”করোনার এই সময়ে অনলাইনে অনেক চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে আমরা ক্লাস চালিয়েছি। সেই সাথে ব্যবহারিক ক্লাসও নেয়া হয়েছে। ব্যবহারিক ক্লাসেই আমরা ‘দ্বি এমসিজে’ পত্রিকার কাজ শেষ করেছি। এই পত্রিকার মূল লক্ষ্য থাকবে দেশ-বিদেশে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল রাখা। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের উৎসাহের কারণে আমরা এই পত্রিকাটি বের করতে সক্ষম হয়েছি।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. আসাদুজ্জামান বলেন,’করোনার মধ্যে সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থীরা যে প্রিন্ট পত্রিকা বের করছে আমি বলবো তা আমাদের জন্য নতুন দিগন্ত উন্মোচিত করেছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে আইন অনুযায়ী যতটুকু সহযোগিতা করার প্রয়োজন তা আমরা করবো। সেইসাথে বিভাগের শিক্ষার্থীদের অভিবাদন জানাই।’


সম্পর্কিত আরও পড়ুন





Leave a reply