ঢাবির ঐতিহ্যবাহী কৃষ্ণচূড়া গাছ কাটার প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের কফিন মিছিল

|

কাটা গাছের গুঁড়ি নিয়ে শিক্ষার্থীদের প্রতীকী কফিন মিছিল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনের পাশের ঐতিহ্যবাহী কৃষ্ণচূড়া গাছটি কাটার প্রতিবাদে কাটা গাছের একটি অংশকে কাফনে মুড়িয়ে প্রতীকী কফিন মিছিল করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। মিছিল শুরুর আগের গাছটির পাশেই আরেকটি কৃষ্ণচূড়া গাছের চারা রোপন করেন শিক্ষার্থীরা।

আজ বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলাভবনের সামনে শুরু হওয়া মিছিলটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে ভিসির বাসভবনের প্রধান ফটকে এসে শেষ হয়। সেখানে কাফন সমেত গাছের গুড়িটি রেখে আসেন শিক্ষার্থীরা।

ভিসির বাসভবনের মূল ফটকে রাখা প্রতীকী কফিন।

মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে কৃষ্ণচূড়া গাছটি কাটার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি নিন্দা জানান শিক্ষার্থীরা। কৃষ্ণচূড়া গাছ কাটার প্রতিবাদ হিসেবে শিক্ষার্থীরা কেটে ফেলা গাছের পাশে নতুন একটি কৃষ্ণচূড়া গাছের চারা রোপন করেন।

কেটে ফেলা গাছটির পাশেই আরেকটি কৃষ্ণচূঁড়ার চারা লাগিয়েছেন শিক্ষার্থীরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থী কাজী রাকিব হোসাইন যমুনা টেলিভিশনকে বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বলেছে যে গাছটি ঝুঁকিপূর্ণ ছিল। কিন্তু সাধারণ শিক্ষার্থীরা মনে করছে প্রশাসনের এ বক্তব্য ভিত্তিহীন ও ভুয়া, গাছটি মোটেও ঝুঁকিপূর্ণ ছিল না। বলা হয়েছিলো, গাছের গুঁড়িটি ফাঁপা, এটিও একটি মিথ্যা কথা। আমরা ফেলে রাখা গুড়িটি দেখেছি। গাছটি কেটে ইচ্ছাকৃতভাবে ক্যাম্পাসের বাস্ততন্ত্রকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলা হয়েছে। এ গাছটি ছিল আমাদের ঐতিহ্যের অংশ ও আমাদের অনেক স্মৃতির মনুমেন্ট।

/এসএইচ





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply