‘পুলিশ ওকে গুলি করে মারলেও আক্ষেপ নেই’, ধর্ষকের বাবা

|

ছবি: সংগৃহীত

বাণিজ্যনগরী মুম্বাইয়ের সাকিনাকায় ধর্ষণ ও নৃশংস নির্যাতনের শিকার হয়ে মৃত্যু হয়েছে এক নারীর। সেই নারীর করুণ পরিণতিতে গর্জে উঠেছে পুরো ভারত। এবার ক্ষোভে ফেটে পড়লেন ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্তের বাবা। জানালেন, পুলিশ যদি তার ছেলেকে গুলি করেও মারে, এতে তার কোনো আফসোস হবে না।

অভিযুক্ত মোহিতের বাবা কাটওয়ারু চৌহান প্রথমে বিশ্বাস করেননি তার ছেলে এমন কোনো কাজ করতে পারে। কিন্তু সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ভুল ভেঙেছে তার। ছেলের এমন রূপ দেখে স্তম্ভিত হয়ে যান তার বাবা। এক ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় নিজের ছেলের উপরেই ক্ষোভ ঝেড়েছেন তিনি। বলেন, যদি পুলিশ ওকে গুলি করেও মারে তার কোনো আক্ষেপ হবে না।

ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৪৫ বছরের মোহন চৌহানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও খুনের চেষ্টার অভিযোগ দায়ের হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ মনে করছে, এই ঘটনায় আরও একাধিক লোক জড়িত থাকতে পারে।

উল্লেখ্য, ঘটনার পরের দিন ভোরে মুম্বাই পুলিশের কাছে একটি ফোন আসে। সেই ফোনে জানানো হয়, সাকিনাকার খ্যায়রানি এলাকায় রক্তাক্ত অবস্থায় এক মহিলা পড়ে আছেন। সঙ্গে সঙ্গে পুলিশের একটি দলকে সেখানে পাঠানো হয়। দেখা যায়, টেম্পোর ভিতরে মহিলার রক্তাক্ত দেহ পড়ে রয়েছে। তাকে উদ্ধার করে পাঠানো হয় রাজাওয়াড়ি হাসপাতালে। জানা যায়, ধর্ষণের শিকার হয়েছেন ৩৪ বছরের মহিলা। ধর্ষণের পাশাপাশি তার যৌনাঙ্গে নির্যাতন চালানো হয়েছে। প্রায় ৩৩ ঘণ্টা ধরে হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়েছিলেন নির্যাতিতা। পরে হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

সূত্র: ভারতীয় সংবাদমাধ্যম টাইমস নাও নিউজ।





সম্পর্কিত আরও পড়ুন







Leave a reply