মেয়েদের জিনস, স্কার্ট নিষিদ্ধ

|

কলেজে যেতে মেয়েদের পরতে হবে শাড়ি অথবা সালোয়ার কামিজ। জিনস ও স্কার্টের মতো কোনো পোশাক পরা যাবে না। এমন একটি ঘোষণা এসেছে  বিশ্ব নারী দিবসেই।

ভারতে বিজেপি শাসিত রাজস্থানে সকল সরকারি এবং বেসরকারি কলেজের কাছে এ সংক্রান্ত নির্দেশিকা পাঠিয়েছে রাজ্যের কমিশনারেট অব কলেজ এডুকেশন। নির্দেশিকায় বলা হয়, ‘এই ড্রেস-কোড চালু করতে হবে আগামী শিক্ষাবর্ষ থেকেই।’

এ নিয়ে বেশ জনমনে বেশ অসন্তোষ দেখা দিয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় একাধিক গণ মাধ্যম। প্রতিবাদের সরগরম হয়ে উঠেছে পুরো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমও।

নারী অধিকার বিষয়ক সংগঠনগুলো একে পোশাকের পরার স্বাধীনতা হরণ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। পরিস্থিতি সামলাতে মুখ খুলেছেন রাজস্থানের শিক্ষামন্ত্রী কিরণ মাহেশ্বরী। তিনি বলেন, “পোশাকের স্বাধীনতা হরণের কোনো প্রশ্নই আসে না। কলেজে বহিরাগতদের প্রবেশ ঠেকাতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।”

এই ঘটনায় বিজেপিকে এক হাত নিয়েছে কংগ্রেস। তাদের অভিযোগ, বিজেপি শাসিত এলাকাগুলোয় শিক্ষার নামে গেরুয়াকরণ চলছে। রাজস্থানের স্কুল পড়ুয়াদের মধ্যে বিতরণ করা সাইকেলগুলোর রঙও গেরুয়া।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ ক্ষমতায় আসার পরেই মেয়েদের কলেজে ড্রেস কোড চালু করার নির্দেশ দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ জানিয়েছে কংগ্রেস।

উল্লেখ্য, ভারতের বেশ কিছু রাজ্যের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জিনস পরায় নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

যমুনা অনলাইন: এফএইচ









Leave a reply