ইট তৈরিতে প্রতারণা বন্ধে কুষ্টিয়ায় অভিযান

|

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:

যমুনা টেলিভিশনে প্রচারিত সংবাদে আলোচনায় আসে কুষ্টিয়ার ইটভাটাগুলোর অভিনব প্রতারণার খবর। ইটের আকার ছোট, ভেজাল রয়েছে ঘনত্বে। বিষয়টি গণমাধ্যমে উঠে আসায় অভিযান পরিচালনা করে কুষ্টিয়ার জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। ভাটায় প্রস্তুতকৃত ইটের পরীক্ষার পর মাপে কম ও ঘনত্বে ভেজাল দেয়ার বিষয়টি প্রমাণ হলে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে জরিমানা করা হয় ইটভাটা মালিকদের। সোমবার দুপুর ১টায় জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় এই অভিযান পরিচালনা করেন।

অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক সেলিম জামান জানান, বিএসটিআই এবং গণপূর্ত বিভাগ নির্ধারিত ও অনুমোদিত ইটের মাপ ও সাইজে গরমিল এবং সেগুলি ভোক্তাদের কাছে বিক্রয়ের সত্যতা পাওয়ায় তিন ইটভাটা মালিককে ৫০হাজার করে দেড় লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা করা হয়েছে সদর উপজেলার বৈদ্যনাথপুর গ্রামের এমআরবি ব্রিকস, ঝাউদিয়ার ডাবলু ব্রিকস এবং আলামপুরের ডায়মন্ড ব্রিকসকে।

উল্লেখ্য ২০১৩সালের ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন আইনানুযায়ী ইট তৈরীতে বিএসটিআই থেকে সরকারীভাবে মাপ নির্ধারণ করা আছে। ইটের অনুমোদিত মাপ হতে হবে যথাক্রমে দৈর্ঘ্য সাড়ে ৯ ইঞ্চি,  প্রস্থ সাড়ে ৪ ইঞ্চি এবং উচ্চতা বা গভীরতা পৌনে ৩ ইঞ্চি। এভাবে দৈর্ঘ্য, প্রস্থ ও উচ্চতা সঠিক হলে তার সর্বমোট ঘন আয়তন হতে হবে ১১৭.৬২ ঘন ইঞ্চি।









Leave a reply