রাতে গ্রেফতার, ভোরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

|

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি:

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলায় গ্রেফতারে পর পুলিশের সাথে ‌‘বন্দুকযুদ্ধে’ জাবেদ মিয়া (৪০) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। রোববার দিবাগত ভোররাত রাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার দক্ষিণ কাইতলা ইউনিয়নের মহেশপুর সড়কের হাওয়ারভাঙ্গা সেতুর কাছে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত জাবেদ ওই ইউনিয়নের দক্ষিণ-পূর্বপাড়া এলাকার ইদন মিয়ার ছেলে। তার বিরুদ্ধে ডাকাতি, হত্যা ও মাদকসহ নানা অভিযোগের নয়টি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা পুলিশের নবীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চিত্ত রঞ্জন পাল।

চিত্ত রঞ্জন পাল জানান, এ ঘটনায় পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। তারা হলেন, নবীনগর থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইহসানুল হাসান, অসীম চন্দ্র ধর, সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) আবুল কালাম এবং কনস্টেবল নাজমুল হোসন ও পারভেজ। আহতদেরকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশের ভাষ্য, রোববার রাত ৮টার দিকে একটি মামলায় জাবেদকে গ্রেফতার করে পুলিশ। পরে তার দেয়া তথ্যমতে তাকে নিয়ে হাওয়ভাঙ্গা সেতুর কাছে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ। জাবেদকে গাড়ি থেকে নামিয়ে সেতুর নিচে নেয়ার সময় তার সহযোগীরা তাকে ছিনিয়ে নেয়ার জন্য পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এসময় পুলিশও আত্মরক্ষার্থে পাল্টা গুলি চালায়। এতে জাবেদ ও পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হন।

আহতদেরকে নবীনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ভোর পাঁচটার দিকে জাবেদকে মৃত ঘোষণা করেন বলে পুলিশের দাবি। ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশীয় তৈরি পাইপগান, ছয় রাউন্ড কার্তুজ, চার রাউন্ড কার্তুজের খোসা এবং চারটি রামদা উদ্ধার করা হয়েছে।

চিত্ত রঞ্জন পাল বলেন, জাবেদ নবীনগর থানার তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী ও ডাকাত।









Leave a reply